২০২২ সালে গুগলে সবচেয়ে বেশি সার্চ কি-ওয়ার্ড

মানুষ গুগলে বেশি সার্চ করে

২০২২ সালে গুগলে সবচেয়ে বেশি সার্চ কি-ওয়ার্ড: আমি নিশ্চিত আপনারা যারা আমার এই লেখা পড়তেছেন, তারা সবাই ব্লগার অথবা নতুন করে ব্লগ লিখতে চাচ্ছেন।  আর আপনাদের জন্য বলতেছি অধৈর্য হাড়া হবেন না। একটু পড়েই চলে যাবেন না। সম্পূর্ণ বিষয়টা ভাল করে পড়ুন এবং বোঝার চেষ্টা করুন।

আপনি যদি একটু পড়েই চলে যান এ থেকেই বোঝা যায় আপনার ধৈর্য কতটুকু আছে। এরকম হলে হবেনা আপনাকে দিয়ে ব্লগিং লেখা।  ব্লগে লিখতে গেলে অনেক ধৈর্য লাগে। আজকে আমি এই লেখার মাধ্যমে আপনাদেরকে সেই সকল সিক্রেট বলে দিব, যেটা আগে কখনো কেউ বলেনি।

আমি আপনাদেরকে জানিয়ে দিব বাংলায় ব্লগ লিখতে গেলে কোন কোন বিষয়গুলো মানুষ সবচেয়ে বেশি সার্চ করে। এটা আমার অনেক দিনের ইচ্ছে ছিল যে আমার মত যেন কেউ কষ্ট না করে। সবাই যেন ব্লগিং লিখে ভালো অঙ্কের টাকা ইনকাম করতে পারে ।

আর তাই আপনি আমার লেখাটা প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়লেই জানতে পারবেন মানুষজন কোন কোন বিষয়ে গুগলে সার্চ বেশি করে সেই বিষয় গুলো নির্বাচন করে আপনি লিখতে পারেন আপনার ব্লগ।  বিশেষ করে যারা বাংলায় ব্লগ লিখেন তাদের জন্য আমার এই লেখাটি খুবই কাজে আসবে।

কি-ওয়ার্ড কি?

কিওয়ার্ড কি? এ বিষয়টা যারা ব্লগিং করে তারা পূর্বে জেনে গেছেন।  তার পরেও যারা নতুন তাদের কাছে এটা একটি  ভিন্ন বিষয় বা নাজানার বিষয় হতে পারে তাই নতুন দের জানানোর জন্যই আমি এই বিষয়ে সংক্ষিপ্ত ভাবে বলতে চাই কিওয়ার্ড হলো সেই ওয়ার্ড যেটা লিখে আমরা গুগলে বা নেটে সার্চ করে থাকি ।

বিষয়টা আরো পরিস্কার ভাবে বলতেগেলে আমরা যারা ইন্টারনেট ব্রাউজ করি এবং আমরা বিভিন্ন বিষয়ে লিখে ইন্টারনেটে সার্চ করি । আমাদের যে বিষয়টা প্রয়োজন আমরা শুধু সেই বিষয়টা ইন্টারনেট দুনিয়া সার্চ করে থাকি । আর যে বিষয়টা লিখে আমরা সার্চ করি মূলত সেটাকে আমরা কিওয়ার্ড বলে থাকি।

কি-ওয়ার্ড এর গুরুত্ব

আপনি যদি একজন ভাল ব্লগার হতে চান। তাহলে আপনাকে অবশ্যই কিওয়ার্ড লেখায় পারদর্শী হতে হবে। কি-ওয়ার্ডের গুরুত্ব আপনার জানতে হবে। কি-ওয়ার্ডের এর গুরুত্ব বলতে গেলে আমরা যেহেতু আমাদের লেখার মূল লক্ষ্য হচ্ছে ভিজিটর আর ভিজিটর আসার মূল উপাদান হচ্ছে ব্লগের কি-ওয়ার্ড।

এর কারণ হলো যখন কোন ব্রাউজার তার ইন্টারনেট ব্রাউজ করে তখন সে শুধু কি-ওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করে, আর আমরা যদি সেই কাঙ্খিত কিওয়ার্ড না লিখে এলোমেলো কিওয়ার্ড লিখি অথবা কিওয়ার্ড লেখা না বুঝে যেকোনো লেখাকে কি-ওয়ার্ডের হিসেবে চালিয়ে দেই সে ক্ষেত্রে আমরা আমাদের সাইটে ভিজিটর পাবোনা । আর ভিজিটর না পেলে আমরা কাঙ্খিত আয় করতে পারবো না।

আর এজন্যই আমাদের সবসময় খেয়াল রাখতে হবে মানুষ যে বিষয়টি নিয়ে গুগলে সার্চ করে শুধু সেই বিষয়টা কেই আমরা কি-ওয়ার্ড হিসেবে লিখব। আর সেই বিষয়টা যদি আমরা একুরেট ভাবে লিখতে পারি তাহলে শুধু আমরা আমাদের সাইটে বেশি বেশি ভিজিটর পাবো। এই জন্য ব্লগ লেখার ক্ষেত্রে কি কি-ওয়ার্ডের গুরুত্ব অপরিসীম।

 বাংলায় সবচেয়ে বেশি সার্চ কি-ওয়ার্ড

বাংলায় সবচেয়ে বেশি সার্চ কি-ওয়ার্ড
বাংলায় সবচেয়ে বেশি সার্চ কি-ওয়ার্ড

এখন অনেকেই প্রশ্ন করবেন আমি একজন বাংলা ব্লগার, বাংলায় মানুষজন কোন বিষয়গুলো নিয়ে বেশি বেশি গুগোলে সার্চ করে? আমি কোন বিষয়টা লিখলে বেশি ভিজিটর পাব? কারণ গুগলের আপনি ব্লগিং করতে গেলে সবারই টার্গেট থাকে ভিজিটর। যে যত বেশি ভিজিটর পাবেন তত বেশি  আয় হবে।

আমি আপনাদের জন্য এ বিষয়টা পরিষ্কার করে বলছি। আপনি যদি একজন বাংলা ব্লগার হন তবে বেশ কিছু নিস আছে যেগুলো দিয়ে আপনি আপনার সাইটকে মনিটাইজেশন করিয়ে ভাল অঙ্কের টাকা রোজগার করতে পারবেন। সেই নিস গুলো হলো নিম্নরুপ।

ব্যাংক বীমা নিয়ে ব্লগ

আপনি যদি বাংলায় ব্যাংক-বীমা নিয়ে লেখালেখি করেন সেক্ষেত্রে ব্যাংক-বীমার সিপিসি হচ্ছে অনেক বেশি। তাই আপনি ব্যাংক নিয়ে বীমা নিয়ে লেখালেখি করতে পারেন। এক্ষেত্রে আপনার ভিজিটর সংখ্যা পাবেন অনেক বেশি। তবে খেয়াল রাখতে হবে আপনার লেখার মান অবশ্যই ভালো হতে হবে এবং গুগলে রংকিংয়ে ভালো করতে হবে, তবেই শুধু আপনার ভিজিটর পাবেন।

স্কুল লাইভ নিয়ে স্ট্যাটাস

বর্তমানে স্কুলের বাচ্চারা ইন্টারনেট দুনিয়ায় সবচেয়ে বেশি বিচরণ করে। তারা বেশি সময় ইন্টারনেট ব্রাউজ করে থাকে এবং বিভিন্ন বিষয় সার্চ করে থাকে। আর এই জন্যই তারা স্কুল লাইফের বিভিন্ন স্ট্যাটাস নিয়ে বেশি সার্চ করে থাকেন। আপনি যদি স্কুল লাইফের স্ট্যাটাস নিয়ে লেখালেখি করেন সেক্ষেত্রে আপনার ভালো ভিজিটর পাবেন।

ত্বকের যত্ননিয়ে

মেয়েরা ইন্টারনেট ব্যবহার করলে তারা ত্বকের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ঘাটাঘাটি করে থাকেন। ত্বক কিভাবে সুন্দর রাখা যায়? কিভাবে আরো উজ্জ্বল হবে এ বিষয়ে তারা বিভিন্ন খুটিনাটি বিষয় সার্চ করে থাকে। আর তাই জরিপে দেখা গেছে মেয়েরা গুগোল রূপচর্চা সম্পর্কে অনেক বেশি সার্চ করে। আর আপনি যদি এই বিষয়টি নিয়ে লেখালেখি করেন তাহলে ভালো ফল আশাকরা যায়।

বিভিন্ন উৎসব নিয়ে স্ট্যাটাস

উৎসব আসলেই সবাই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে। আর তাই সবাই সার্চ করতে থাকে সবচেয়ে ভালো স্ট্যাটাসটি। আপনি যদি বিভিন্ন উৎসব কে টার্গেট করে, ব্লগ লেখা শুরু করেন। আপনার ব্লগ যদি ভালো রেংকিং করে তাহলে আপনি নিশ্চিত সেই ব্লক থেকে ভাল অঙ্কের টাকা আয় করতে পারবেন।

রান্নাবিষয়ক ব্লগ

রান্না করা আমাদের প্রতিদিনের কাজ। তাই অনেকেই যারা রান্না পারে না তারা চেষ্টা করে কিভাবে ভাল রান্না করা যায়। আর রান্না শেখার জন্য তারা বেছে নেয় ইন্টারনেটের মাধ্যম। কারণ হাতের নাগালেই থাকে ইন্টারনেট এবং মোবাইল অথবা কম্পিউটার দ্বারা সহজেই ইন্টারনেট থেকে রান্না শেখার জন্য ইন্টারনেটে সার্চ করে থাকে ।

তারা খোজাখুজি করে থাকে রান্না শেখার বিভিন্ন বিষয়। তাই আপনি যদি রান্না বিষয়ক বিভিন্ন  রেসেপি লেখেন তাহলে ভিজিটর পেতে পারেন।

বিভিন্ন চাকরির বিজ্ঞপ্তি

বর্তমানে বাংলাদেশে বেকারের সংখ্যা অনেক বেশি। আর তাই চাকরির খোঁজ প্রতিদিনই লক্ষ লক্ষ মানুষ করে থাকে। আপনি যদি প্রতিদিন চাকরির ব্লগ লিখেন এবং প্রতিদিন আপডেট দেন তাহলে আপনি অসংখ্য ভিজিটর পেতে পারেন। সে ক্ষেত্রে আপনার লক্ষ্য রাখতে হবে আপনার ব্লগ বা আপনার পোস্টটি কপি পেস্ট হচ্ছে কিনা ? কপি-পেস্ট বর্জন করে যদি আপনি প্রতিদিন চাকরির বিজ্ঞপ্তি দিতে পারেন। তাহলে নিশ্চিত আপনি ভালো ফলাফল পাবেন।

কৃষি বিষয়ক ব্লগ

কৃষি বর্তমানে আধুনিক হয়েছে। অনেক শিক্ষিত যুবক বেছে নিয়েছে কৃষি পেশাকে । আর তারা বিভিন্ন সমস্যায় সাহায্য নিয়ে থাকে ইন্টারনেটের ব্রাউজিং করে । বিভিন্ন সাইট থেকে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য। আর আপনি যদি কৃষি বিষয়ক বিভিন্ন বিষয়ের উপর লেখালেখি করেন এবং বিভিন্ন সমস্যার সমাধান নিয়ে লেখেন, তাহলে আপনি ভালো মানের অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

বিভিন্ন পণ্য বিজ্ঞাপন দিয়ে

বর্তমানে এই পেশাটা হয়েছে জনপ্রিয় একদিকে যেমন আপনি পণ্য বিক্রি থেকে কমিশন পাচ্ছেন অন্যদিকে আপনি ভিজিটরের আসার ফলে আপনি এডসেন্সের মাধ্যমে একটি নির্দিষ্ট পরিমান টাকা পাচ্ছেন ফলে আপনার দুই দিক থেকে রেভিনিউ ইনকাম হচ্ছে যেটা একটি দারুণ সুযোগ আপনি ইচ্ছে করলে বিভিন্ন পণ্যের বিজ্ঞাপন দিয়ে সেখান থেকে আপনি মোটা অংকের টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে আপনি বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে সহযোগিতা নিতে পারেন। যেমন অ্যামাজন, আলিবাবা, আলীএক্সপ্রেস , বিডিজসপ সহ আরো বেশ কিছু অনলাইন মার্কেট আছে । যারা কমিশনের মাধ্যমে বিভিন্ন পণ্য বিক্রির অফার দিয়ে থাকে। আপনার পণ্যের প্রচার করে তা যদি বিক্রি করে দেন, তবে নির্দিষ্ট পরিমাণে কমিশন পাবেন।

ইংরেজিতে বেশি সার্চ কি-ওয়ার্ড

আপনি একজন বাংলা ভাষাভাষী মানুষ। কিন্তু ইংরেজিতে ব্লগ লেখায় পারদর্শী । তো আপনাকে আমি সাজেশন দিব আপনি বাংলায় ব্লগ না লিখে অবশ্যই ইংরেজিতে লিখবেন। সেই ক্ষেত্রে আপনার আয়ের পরিমাণ হবে কয়েকগুণ বেশি । আপনি যদি ইংরেজিতে লিখতে পারেন তাহলে আপনাকে আজ আমি বলে দিব সবচেয়ে বেশি সিপিসি কি-ওয়ার্ড। যেগুলো দিয়ে লিখলে আপনি অনেক বেশি আয় করতে পারবেন। এই বিষয়গুলো গুগলে মানুষ সবচেয়ে বেশি সার্চ করে থাকে।

টেবিল -০১
RankingKeywordGlobal volume
1youtube1225900000
2Facebook1102800000
3Whatsapp web607900000
4google548200000
5Gmail438800000
6amazon381600000
7translate371100000
8google translate314600000
9traductor287300000
10Hotmail243500000
11Instagram230700000
12weather156600000
13Netflix152500000
14yahoo133100000
15twitter131800000
16yahoo mail130600000
17google maps107200000
18WhatsApp105600000
19FB102200000
20Roblox100200000
21eBay95710000
22outlook89090000
23google classroom74170000
24Walmart73980000
25maps72110000
26yt71600000
27Pinterest66510000
28speed test65420000
29NBA64530000
30BBC News63020000
31Ikea57590000
32Omegle56690000
33news55580000
34classroom55000000
35twitch52960000
36home depot51740000
37amazon prime51370000
38g46310000
39weather tomorrow46150000
40Facebook login46100000
41discord45250000
42PayPal44350000
43LinkedIn44170000
44tiempo42120000
45y41190000
46CNN39000000
47calculator37550000
48shein37420000
49fox news37240000
50google drive36550000
টেবিল-০২
RankingKeywordGlobal volume
51target35140000
52results34970000
53aliexpress34290000
54daily mail32900000
55you tube32830000
56MSN31850000
57indeed31500000
58premier league31460000
59Gmail login31400000
60canva31260000
61office 36531180000
62ps531070000
63f30810000
64zoom29060000
65December global holidays28620000
66best buy28400000
67Spotify28220000
68Zara28050000
69Costco27670000
70google docs27090000
71youtube to mp326590000
72trump26510000
73google scholar26500000
74food near me26400000
75onlyfans26360000
76iPhone 1226300000
77USPS tracking25830000
78Kahoot25810000
79Airbnb25240000
80restaurants near me25150000
81bitcoin24660000
82nfl23820000
83tiempo mañana23720000
84craigslist23500000
85apple23430000
86ltarget23320000
87Nike23270000
88election results23150000
89restaurants23130000
90Minecraft23010000
91dominos22910000
92ESPN22850000
93Etsy22410000
94clima22170000
95Starbucks22040000
96TikTok21160000
97lowes21100000
98Craiglist20890000
99Disney plus20820000
100champions league20,590,000

কি-ওয়ার্ড জানা কেন প্রয়োজন?

আপনি ব্লগিং করবেন আর কি-ওয়ার্ড সম্পর্কে ধারণা থাকবে না, তাহলে আপনাকে দিয়ে ব্লগিং হবে না। তাই ব্লগিং করার জন্য কি-ওয়ার্ড সম্পর্কে ধারণা থাকা খুব প্রয়োজন। কারণ আপনার কি-ওয়ার্ড দিয়েই মানুষ খোঁজ করবে। আপনি যত কি-ওয়ার্ড ভাল লিখতে পারবেন সেক্ষেত্রে আপনার ব্লগ রেংকিংয়ে আসবে ।

অর্থাৎ প্রথম পেইজে আসার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে এবং কেউ যদি হুবহু আপনার কি ওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করে তাহলে আপনার লেখাটিই  প্রথমে আসবে। এভাবে আমাদের চর্চার মাধ্যমে প্রচুর কিওয়ার্ড সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। তবেই আমরা ব্লগিংয়ে ভালো করতে পারব।

(যাদের ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার নাই চিন্তা করার কোনো কারণ নেই। আপনি মোবাইল দিয়ে ঘরে বসে টাকা আয় করতে পারবেন। কিভাবে সহজেই মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করা যায় তা জানার জন্য এই পেজে ঘুরে আসুন)

কোথা থেকে কি-ওয়ার্ড পাওয়া যাবে?

যখন আমরা নতুন ব্লগিং শুরু করে কয়েকটি ব্লগ লেখার পরেই আমরা সমস্যায় পড়ে যাই কি-ওয়ার্ডে নিয়ে। কি ধরনের ব্লগ লিখব? কীভাবে আমরা কিওয়ার্ড পাবো তখন আমরা কেউ কেউ সমস্যায় পড়ে ব্লগ লেখা থেমে যায়। আর যাদের এই ধরনের সমস্যা হয় তাদের জন্যই বলছি আপনি বিভিন্ন ওয়েবসাইট দেখে  কি-ওয়ার্ডে সংগ্রহ করতে পারেন।

সে ক্ষেত্রে আমি  উবারসাজেস্ট অথবা গুগলট্রেন্ডস এর সহযোগীতা নিতে পারেন। এছাড়াও  যারা ভাল মানের বাংলা ব্লগার তাদের ব্লগ সাইটে গিয়ে আপনি দেখতে পারেন, কোন কোন লেখা গুলো আপনার পছন্দ হয় এবং সেই লেখাগুলা মানুষ সার্চ করার সম্ভাবনা বেশি কিনা সেগুলো আপনি ব্লগ হিসেবে লিখত পারেন। তাহলে আপনার ব্লগ লেখা ভালো হবে।

এছাড়াও বাংলা ভাষাভাষী মানুষের যে সকল উৎসব আছে, সবগুলোকে সমনে নিয়ে তার বিভিন্ন শুভেচ্ছা, বার্তা , কবিতা ও  উক্তি সহ বিভিন্ন ছবির মাধ্যমে বাংলায় ব্লগ লিখতে পারেন।

(সুখী হতে চান? তো আর দেরি কেন জেনে নিন সুখী হওয়ার গোপন ট্রিকস। সেই গোপন টিপস গুলো নিয়ে আলোচনা করেছি যেগুলো পেতে ক্লিক করতে হবে এখানে)

আমরা কিভাবে কীওয়ার্ড নির্বাচন করব?

কী-ওয়ার্ড নির্বাচন করার সময় আপনাদের অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে আপনি সেই বিষয়টা সম্পর্কে ভালভাবে জানেন কিনা। ওই বিষয়টা মানুষ সার্চ করে কিনা। এই দুই যখন মিলে যাবে তখন আপনার ধরে নিতে হবে আপনি এই ধরনের ব্লগ লিখবেন। এইটাই আপনার জন্য পারফেক্ট।

আপনাদেরকে অনুরোধ করছি অনেক কী-ওয়ার্ড আছে যেগুলো অনেক বেশি মানুষ সার্চ করে কিন্তু আপনি সেই সম্পর্কে প্রচুর জ্ঞান লাভ করতে পারেন নাই অথবা অনেক বড় বড় কোম্পানি, ব্লগার অনেক ভালো মানের আর্টিকেল দিয়ে রেখেছে। সে ক্ষেত্রে আপনি আপনার লেখা দিয়ে সেখানে ভালো করতে পারবেন না।

এজন্য অবশ্যই আপনার দেখতে হবে কোন কিওয়ার্ডগুলো সার্চ বেশি কিন্তু প্রতিযোগী কম।

(মাত্র কয়েকটা টিপস ফলো করলে আপনার জীবনটা বদলে যেতে পারে। জীবনটা হতে পারে অনেক সুখের । আর সেই সকল টিপস গুলো নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে আমাদের এই পেজে ঘুরে আসতে পারেন এই পেজ থেকে)

মূল কিওয়ার্ডের সাথে সাপোর্ট কি-ওয়ার্ড দেওয়া

যদিও এই বিষয়টি উপরোক্ত টাইটেলের বিস্ময়ের সাথে যায়না। তার পরেও আমি আলোচনা করেছি কারণ আপনারা যারা ব্লগিং করেন বা করতে চান তাদের উপকারার্থে এই বিষয়টি আলোচনা করলাম। কারণ আমরা জানি অনেকেই টাইটেল দেই কিন্তু সাবটাইটেল দেওয়ার সময় চিন্তা করি না। যে আমাদের সাবটাইটেল অনেক সময় রেংকিং করতে পারে অর্থাৎ

কেউ যদি আমাদের সাবটাইটেল লিখে সার্চ করে। সে ক্ষেত্রে আমাদের ব্লগ গুগল সো করতে পারে তার জন্য আপনি যখন একটি ব্লগের সাবটাইটেল দিবেন তখন অবশ্যই খেয়াল রাখবেন সেই সাবটাইটেল ইউনিক কিনা । যদি আপনার সাবটাইটেল ইউনিক এবং ভালো মানের হয় তবে আপনার গুগলের প্রথম পেইজে আসার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যাবে । সাথে সাথে ভিজিটর বেশি হারে পাবেন।

(যেহেতু আপনি বাংলায় ব্লগ পড়ছেন। সেহেতু ধরে নেওয়া যায় আপনি বাংলায় ব্লগ লেখেন। আর বাংলা ব্লগ লিখে কিভাবে টাকা আয় করা যায় তার কিছু  সহজ টিপস আমরা এখানে দিয়েছি। সেই টিপস গুলো পড়লে আপনি সহজেই বাংলা লিখে টাকা আয় করতে পারবেন। তার জন্য এখানে ক্লিক করুন।)

আমাদের মূল লক্ষ্য কী?

আমরা ব্লগিং ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং যেটাই করি না কেন আমাদের মূল লক্ষ্য হচ্ছে অর্থ উপার্জন করা। আর এই অর্থ  উপার্জন করার জন্য আমাদের যেভাবে ভালো হবে সে কাজটাই করার দরকার। তাই প্রথমে আপনি ঠিক করে নিন, আপনি কোন ভাবে অর্থ উপার্জন করতে চান। আপনি কি আফিলিয়েট মারকেটিং এর মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে চান?

নাকি ব্লগে এডসেন্স এর মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে চান? ঠিক করে তারপরে এবার আপনি আপনার কাজ শুরু করেন। তাহলে দেখবেন আপনার কাজের গতি এবং আপনার লক্ষ্য পরিপূর্ণ হয়েছে।

(আপনি যদি একজন ব্লগার হন। অবশ্যই আপনার ব্লগ লেখার নিয়ম জানা প্রয়োজন। আর এই নিয়োগ নিয়ে আমাদের অসাধারণ আলোচনা আছে । যেটা পড়লে আপনার ব্লগ লেখার টিপস সম্পর্কে জানতে পারবেন। আর এইটা জানার জন্য আমাদের এই পেজটি ঘুরে আসতে পারেন। তার জন্য ক্লিক করুন এখানে।)

শেষকথা:

অনেক বড় পোস্ট জানি অনেক কষ্ট করে আপনারা পড়েছেন তার জন্য আপনাদেরকে অনেক অনেক ধন্যবাদ । আর আমার এই লেখাটি পড়ে যদি আপনার কোন কাজে লেগে থাকে আমাদেরকে জানাবেন । আর এই বিষয়ে যদি আপনারা কোন কিছু জানতে চান সেটা আমাদের লিখে দিবেন। আমরা পরবর্তীতে আপনার উত্তর দিব।

আপনাদের সেবা করাই আমার লক্ষ্য। আমি চাই আমার লিখনী দ্বারা আপনাদের উপকার হোক এবং আমার মত আপনারাও ব্লগ লিখে টাকা আয় করতে পারেন।

আপনি যদি কৃষি বিষয়ক বিভিন্ন ভিডিও দেখতে চান তাহলে আমাদের এই চ্যানেলে দেখতে পারেন । আমরা এখানে কৃষি বিষয়ক সকল ধরনের সমস্যা নিয়ে ভিডিও দেয়া আছে।

আরো পড়ুন:

১. গুগলের জানা অজানা নানান তথ্য

২. স্কুল লাইভ নিয়ে স্ট্যাটাস

৩. গুগলে মানুষ কোন বিষয়ে বেশি সার্চ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.