Tips & Tricks
Trending

ব্লগ লেখার নিয়ম একটি ভালো ব্লগ এর বৈশিষ্ট্য

ব্লগ লেখার কৌশল

ব্লগ লেখার নিয়ম: বর্তমান সময়ে ব্লগ লিখে টাকা আয় করা একটি খুবই জনপ্রিয় পেশা হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেকেই আমরা চাই ব্লগিং করে টাকা উপার্জন করার। কিন্তু আমাদের ব্লগ টি সুন্দর না হওয়ার কারণে আমরা সেই কাঙ্খিত উপার্জন করতে পারিনা। আর যারা এই সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্যই মূলত আমাদের এই লেখা।

আমার এই লেখাটি পড়লে  আপনি কিভাবে সুন্দর করে ব্লগ লিখতে হয়ে তা জানতে পারবেন। আসুন সে বিষয়টা আজকে আমরা এখানে আলোচনা করব। এর সাথে আরও আলোচনা করব আপনি কিভাবে একটি ব্লগ লিখলে আপনার ব্লগ সুন্দর হবে,এবং কি কি বৈশিষ্ট্য থাকলে আপনার ব্লগকে আমরা একটি আদর্শ ব্লক হিসেবে চিহ্নিত করতে পারবো।

যে ভাবে ব্লগ লিখলে গুগলের রেংকিং এ প্রথম থাকার সম্ভাবনা থাকবে সে বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

ব্লগিং করার প্রয়োজনীয়তা

ব্লগ লেখার নিয়ম
ব্লগ লেখার নিয়ম

এটা অনেকের কাছে হাস্যকর মনে হতে পারে। আমি কি কারনে ব্লক লিখব? কিন্তু তাদের উদ্দেশ্যে বলতেছি এখানে আপনি বেশ কয়েকটি উদ্দেশ্য হাসিল হবে। একদিকে যেমন এটা আপনার একটি আয়ের মাধ্যম হয়ে যাবে, অন্যদিকে হবে আপনি আপনার মেধাকে এখানে বিকশিত করতে পারবেন। তার সাথে সাথে আপনার জানা জিনিস গুলো শেয়ার করতে পারবেন সারা পৃথিবীর মানুষের সাথে।

একই সাথে যেহেতু আপনার সবগুলোই উদ্দেশ্য সাধিত হচ্ছে । তাই আমার কাছে মনে হয়েছে ব্লগ লেখার মত এত সহজ মাধ্যম আর নেই। যে খানে আপনার সবগুলো উদ্দেশ্য একই সাথে হাসিল হয় । তাই আসুন আমরা ব্লগ লিখে সহজে টাকা উপার্জন করা একটি মাধ্যম হিসেবে বেছে নেই। আমাদের মেধাকে বিকশিত করি ।

একই সাথে চাকুরির পিছে না ঘুরে ঘরে বসেই টাকা আয় করি।  আর এই সব গুলো জন্য ব্লগ লেখা আমাদের খুবই প্রয়োজন।

ব্লগের ধরন

ব্লগ লেখার নিয়ম
ব্লগ লেখার নিয়ম

ব্লগ যেকোনো ধরনের হতে পারে ধরনের হতে পারে। এর কোন ধরনের শেষ নাই। আপনি যা লিখবেন সেটাই ব্লগ। আপনি শুধু যে বিষয়টা সম্পর্কে লিখবেন সে বিষয়টা সম্পর্কে আপনার পূর্ণ ধারনা থাকতে হবে। আপনার লেখার মাধ্যমে যেই মেসেজটা আপনি দিতে চাচ্ছেন সেটা যেন পূর্ণাঙ্গ একটি মেসেজ হয় ।

মানুষ যেন আপনার ব্লগ টি পড়ে সেই বিষয়টা সম্পর্কে পরিপূর্ণ ধারণা লাভ করতে পারে । আপনাদের বলে রাখি ব্লগ আপনার হাজার হাজার রকমের হতে পারে ব্লগের ধরনের কোনো শেষ নাই।

বিষয় ভিত্তিক ব্লগ

আপনি যে ব্লগে লিখবেন সেই  ব্লগ টি যেন অবশ্যই বিষয়ভিত্তিক ব্লগ হয়। বিষয়ভিত্তিক ব্লগ না হয়ে যদি আপনি মনগড়া কিছু লিখতে চান তবে সেটা ভালো হবে না । সেটা থেকে আপনি আশানুরূপ উপার্জন করতে পারবেন না। তাই আমরা যখন ব্লগ লিখব ব্লগটা অবশ্যই আমাদের বিষয়ভিত্তিক হতে হবে।

যে বিষয়ে আমরা ব্লগ লিখব সেই বিষয়ের উপর পরিপূর্ণ ধারণা সহ লিখতে হবে। যাতে করে সেই বিষয়ভিত্তিক ব্লগে যে কেউ পড়ে সেই বিষয়টা পরিপূর্ণ জানতে পারে।

ব্লগের বিষয় নির্বাচন

যে কোন কাজ করি না কেন তার পরই পূর্বেই আমাদের পরিকল্পনা করা উচিত। পরিকল্পনা ভালো হলে আমরা বলতে পারি কাজের অর্ধেক হয়ে যায় । আর এক্ষেত্রে আপনার ব্লগ এর বিষয়ে নির্বাচন করা খুবই প্রয়োজনীয় বিষয়। ব্লগ এর বিষয় নির্বাচন করা পরিকল্পনারই অংশ। আমি কোন বিষয়ে ব্লগ লিখতে চাই সেই বিষয়টা আগে আমার নির্বাচন করতে হবে। তবেই আমি ব্লগ লিখে আমার আশানুরূপ ফল পাব। তা ছাড়া ফল পাওয়া সম্ভব নয়।

ব্লগে ভিজিটর ধরে রাখার কৌশল

আমরা অনেক সময় ব্লগ লিখি। ব্লগ পোস্ট করি এবং ব্লগে কিছু ভিজিটর উপাই  কিন্তু সেই ভিজিটর এসে চলে যায়। যার জন্য আমাদের বাউন্স রেট হয়ে যায় বেশি। আমরা ব্লগে ভিজিটর ধরে রাখতে পারি না। আর ব্লগে ভিজিটর ধরে রাখা হচ্ছে আপনার জন্য অন্যতম জরুরি একটি কাজ। কিভাবে আমরা ভিজিটর ধরে রাখতে পারি?

সেই বিষয়টা বলতে গেলে বলতে হবে আপনি আপনার আলোচনায় অবশ্যই যে  জিনিসটি ব্যবহার করবেন তা হলো আপনার আলোচনায় অতিরঞ্জিত অথবা সাবজেক্টের সাথে সামঞ্জস্য নয় এ ধরনের আলোচনা থেকে সব সময় বিরত থাকতে হবে ।

কোনোভাবেই সাবজেক্ট ব্যতীত অন্য কোন বিষয় আলোচনা করা যাবে না এবং আপনার অবশ্যই তথ্যনির্ভর ব্লগ হতে হবে। আপনার ব্লগ থেকে একজন ভিজিটর যখন আসবে তখন  তার প্রয়োজনীয় সকল তথ্য যেন সে পায়। তবেই ভিজিটর আপনার সাইটে থাকবে। তা না হলে আপনি ভিজিটর ধরে রাখতে পারবেন না।

এজন্য ব্লগ লেখার ক্ষেত্রে সব সময় সাবধান থাকতে হবে যেন আপনার সাইটে প্রচুর তথ্য থাকে। যে বিষয়ে  আপনি  জানাতে চাচ্ছেন।

(আপনি যদি একজন বাংলা ব্লগার হয়ে থাকেন এবং বাংলায় ব্লগ লিখে টাকা আয় করতে চান। তাহলে আপনার প্রয়োজন এই পেইজটি। এই পেইজে আপনি পেয়ে যাবেন বাংলা ব্লগ লিখে কিভাবে সহজে ঘরে বসে টাকা আয় করা যায় এর জন্য ক্লিক করুন এখানে)

ব্লগ পোস্ট করার নিয়ম

অনেক সময় আমরা ব্লগে আমাদের কনটেন্ট পোস্ট করে থাকি। সে ক্ষেত্রে দেখা যায় আমরা তা নিয়মিত পোস্ট করিনা। পোস্টগুলা আমারা অনিয়মিত করে থাকি যার ফলে দেখা যাচ্ছে একদিন আমরা একাধিক পোস্ট করতেছি। আবার মাঝখানে কিছুদিন গ্যাপ দিচ্ছি। এতে করে গুগোল বোট যখন আসে  আমাদের সাইটে তখন সাইট থেকে কোন তথ্য না নিয়ে ফিরে যায়।

এর জন্য তখন আপনার সাইটে নেগেটিভ প্রভাব পড়ে। এর জন্য আমরা যখন আমাদের কনটেন্ট লিখে গুগলে পোস্ট করব অবশ্যই একটা নিয়ম মানার চেষ্টা করব। সে ক্ষেত্রে হতে পারে আপনি প্রতিদিন দিবেন। তা নাহলে একদিন পর পর হতে পারে । দুই দিন পর পর হতে পারে । মোট কথা আপনি যে ভাবেই পোষ্ট দিবেন তা যেন হয় একই নিয়মে ।

প্রয়োজনীয় লিংক ব্যবহার করা

যখন আমরা একটি কন্টেন পোস্ট করি. তখন আমাদের খেয়াল রাখতে হবে. উক্ত পোস্টে প্রয়োজনীয় ইনবাউন্ড এবং আউটবাউন্ড লিংক দিয়েছি কিনা। কারন একটি পোষ্ট প্রথম পেইজে আসার জন্য লিংক গুলো খুবই প্রয়োজনীয়। যখন গুগোল  বট আপনার পোস্টে আসবে যদি সে দেখে আপনার পোষ্টের প্রয়োজনীয় লিংক নাই সেক্ষেত্রে আপনার পোষ্ট র‌্যংকিং করার সময় পেছনে পড়ে যাবে।

আর আপনি যখন এই লিংকগুলো ব্যবহার করবেন তখন অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনি যে লিঙ্কটা ব্যবহার করেছেন সেই লিঙ্কের বিষয়বস্তু এই পোষ্টের  সাথে রিলেটেড কিনা? আপনার লিংকটা হতে হবে একই রিলেটেড এবং কোনোভাবেই পোষ্টে ভূয়া লিংক ব্যবহার করা যাবে না।

প্রয়োজনীয় ছবি ব্যবহার করা

পোস্টে সুন্দর সুন্দর ছবি ব্যবহার করলে পোস্টের মান ভাল হয় এবং পোস্টটা দেখতে অনেক সুন্দর লাগে । তাছাড়া ছবি দেখেও অনেক সময় ভিজিটর আকর্ষনবোধ করে । ছবি দেখেই পোস্টটি পড়ার ইচ্ছা অনুভব হয়। আর এর জন্যই আমরা যখন একটি পোস্টে ছবি পোস্ট করব তখন আমাদের খেয়াল রাখতে হবে আমাদের ছবিটি কোন কপি করা কিনা?

ছবিটি ভাল মানের কিনা। আমি যে ছবিটি দিচ্ছি সেই ছবিটি আমার লেখার বিষয়বস্তুর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কিনা । আমরা যদি লেখার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ ছবি না পেয়ে অন্য ছবি দেই তাহলে সেই সকল ছবি আমরা অবশ্যই বর্জন করব।

আমরা সবসময় চেষ্টা করব একটি ভালো মানের ইউনিক ছবি দিতে। কপি করার ছবি থেকে আমরা চেষ্টা করব সব সময় বিরত থাকার। আমাদের ছবিগুলো হবে অনেক ভালো মানের ফ্রেস তবে আমাদের লেখা ভালো রেংকিং করবে। এছাড়াও অনেক সময়  শুধু ছবিও আপনার রেংকিং এসে যায়। অনেকেই ইন্টারনেটে শুধু  ছবি সার্চ করেন, সেই ক্ষেত্রে আপনার ছবি ভালো হবার কারণে তা প্রথম এসেছে যার ফলে দেখবেন  আপনার সাইটকে ভালো জায়গায় পৌঁছে দিয়েছে।

(প্রতিটা মানুষই চায় তার জীবন বদলে যাক। সেই বদলানোটা হয় যেন ভালোর দিকে । আর তার জন্য কিছু টিপস জানা প্রয়োজন । সেই সকল গুরুত্বপূর্ণ টিপস আছে আমাদের এই পেইজে। আপনি যদি জীবনটাকে বদলে দিতে চান তাহলে এই টিপসগুলো আপনার জানা খুবই প্রয়োজন। জেনে নিতে পারেন এখান থেকে ক্লিক করে)

একটি সুন্দর ব্লগের ধরন

ব্লগের ধরন কেমন হবে? বা ব্লকটি দেখতে কেমন হবে ? অনেকের মনে প্রশ্ন জাগে যে আমি একটি ব্লগ  লিখব ব্লগটা কেমন হলে বুঝা যাবে আমাদের এই ব্লগটি ভাল হয়েছে? সবার এই প্রশ্নের আলোকে  আলোচনার স্বার্থে আমি আপনাদেরকে একটি ব্লগের তিনটি অংশে ভাগ করে দিয়েছি এবং তিনটি অংশে বিবরণ দিচ্ছি ।

আপনার কোন অংশে কি থাকবে এবং এই তিনটি অংশ যদি আপনার সুন্দরভাবে বিবরণ দিতে পারেন তাহলে নিশ্চিত বলা যাবে আপনার ব্লগটি সুন্দর হয়েছে। আপনার ব্লগটি গুগলে নিঃসন্দেহে রেংকিং করবে।

ব্লগের শুরু

ব্লগ লেখার শুরুতে একটি হেডিং থাকবে। এই হেডিং এ আপনি আপনার ব্লগের মূল বিষয়বস্তু নিয়ে আলোচনা করবেন। এই অংশে আপনি তুলে ধরবেন আপনার ব্লগ দ্বারা আপনি কি বিষয়ে ধারনা দিতে চাচ্ছেন। আপনার ব্লগ টি কোন বিষয়ে লেখা? সে বিষয়টা এখানে আপনি সুন্দর করে লিখতে হবে। কোনভাবেই ব্লগের বিষয়বস্তু ছাড়া অন্য কোন অপ্রয়োজনেও বিষয়বস্তু নিয়ে আলোচনা করা যাবে না।

কারণ একজন ভিজিটর আপনার ব্লগে প্রবেশ করেই প্রথমেই এই হিটিং অংশটা পড়বে।  এই অংশ টা পড়ে সে বোঝার চেষ্টা করবে আপনার ব্লগে আপনি কি লিখেছেন। আপনার ব্লগ দ্বারা কতটুকু উপকার সে পাবে সে এখান থেকে বোঝার চেষ্টা করবে।  এজন্য অবশ্যই ব্লগের শুরুতে আপনার ব্লগের মূল বিষয়বস্তু সুন্দরভাবে উপস্থাপন করবেন।

যেন একজন ভিজিটর সহজেই আপনার ব্লগ সম্পর্কে পরিপূর্ণ ধারণা নিতে পারে এই অংশ থেকে।

ব্লকের মূল অংশ

এই অংশটা কে বলা হয় ব্লগের বডি।  বডি মানে হচ্ছে মূল অংশ । এখানে আপনি আপনার ব্লগে দ্বারা যে বিষয়গুলো উপস্থাপন করতে চাচ্ছেন সেই বিষয়গুলো নিয়ে পরিপূর্ণ আলোচনা করবেন , এবং আপনার আলোচনাগুলো থাকবে ধারাবাহিকভাবে । কোনোভাবেই এলোমেলো আলোচনা করা যাবে না। আপনার আলোচনা যেন এক দিক থেকে শুরু করে সেই বিষয়ে শেষ দিক পর্যন্ত পৌঁছে ।

আমি যদি আপনাদের বিষয়টা আরো সুন্দরভাবে বলি আর তাহলো আপনি যখন একটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করবেন এই বডি অংশে আপনি সেই বিষয়টা সুন্দরভাবে উপস্থাপন করতে হবে। যাতে করে একজন মানুষ এই অংশটা পড়ে আপনার লেখার বিষয়বস্তু সম্পর্কে পরিপূর্ণ ধারণা লাভ করতে পারে।

(আপনি যদি একজন ব্লগার হন। তাহলে আপনার অবশ্যই জানা প্রয়োজন গুগলে মানুষজন সবচেয়ে কি বেশি সার্চ করে? এবং সেই বিষয়টা আপনি লিখতে চান। তাহলে আপনার জন্য আমাদের এই পেজটি। এখানে ক্লিক করে জেনে নিন গুগোল এর সবচেয়ে মানুষ কোন বিষয়ে সাহায্য করে।)

ব্লগের শেষ অংশ/শেষকথা/উপসংহার

আপনি এই অংশটা কে যে নামে ডাকেন না কেন? আপনার ব্লগ লেখার ক্ষেত্রে আপনার লক্ষ্য থাকবে একটাই এই অংশে আপনি আপনার ব্লগের সামারি টানার চেষ্টা করবেন। আপনি মূল কথাটুকু এখানে লেখার চেষ্টা করবেন এবং আপনি আপনার ভিজিটরদের আশ্বস্ত করার চেষ্টা করবেন। আপনি যা লিখেছেন তা পরিপূর্ণ একটি ধারণা।

আপনি সবসময় প্রস্তুত আছেন তাদের সাহায্য করার জন্য । কারণ এখান থেকে সে আপনার সম্পর্কে ভাল এবং মন্দ যেকোনো একটি ধারণা নিয়ে ফিরবে। সে যদি ভাল ধারনা নিয়ে ফিরে তাহলে পরবর্তীতে আপনার অন্যান্য লেখায় ডাইভার্ট হবে। আর আপনার প্রতি যদি সে খারাপ মনোভাব নিয়ে ফিরে সে আপনার সাইট থেকে ফিরে আসবে।

পরবর্তীতে আপনার লেখা সে পছন্দ করবে না। এই জন্য এই অংশটা খুবই সতর্কতার সহিত, অল্প কথায় ভালো ইম্প্রেশন দিয়ে আপনার শেষ কথাটি লিখতে হবে।

(আপনি যদি মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করতে চান ঘরে বসেই। তবে  এই লেখাটি আপনার জন্য। এখানে ক্লিক করে আপনি জেনে নিন ঘরে বসে কিভাবে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করা যায়।)

একটি ভালো ব্লগ এর বৈশিষ্ট্য

ব্লগ শুধু লিখলেই হবেনা এটা হতে হবে ভাল মানের আর ভাল মান বুঝার জন্য থাকতে হবে এর কিছু  বৈশিষ্ট্য যা দেখলে আমরা  বলতে পারি  এই ব্লগটি ভাল । আর একটি ভাল মানের ব্লগের যে সকল  বৈশিষ্ট্য থাকতে হয় তা নিম্নে আলোচনা করা হলো।

  • একটি ভাল মানের ব্লগে সুন্দর একটি হেডিং থাকবে। যে হেডিং এর ওয়ার্ড সংখ্যা হবে মিনিমাম একশো এবং সেই ওয়ার্ডে কিওয়ার্ড থাকবে মিনিমাম  দুই থেকে তিনবার। এই অংশে ব্লগের মূল বিষয়বস্তু নিহিত থাকবে।
  •  সুন্দর একটি বডি অংশ থাকতে হবে এবং এই  অংশে আলোচনার বিষয় বস্তু  বিশদ ভাবে আলোচনা থাকতে হবে। যাতে করে এই আলোচনা দ্বারা ভিজিটর একটি পরিপূর্ণ ধারণা গ্রহণ করতে পারে। এই সুন্দর বডি একটা ভাল মানের ব্লগের  বৈশিষ্ট্যে ।
  • উপসংহার বা শেষকথা নামের  একটি সামারি থাকতে হবে। যেটা দিয়ে আপনি ভিজিটরের আকর্ষণ কে আরো বাড়িয়ে দিতে পারেন। ভিজিটর যেন আপনার প্রতি পজিটিভ একটি ধারণা নিয়ে নিতে পারে। আপনার উপসংহার যদি ভাল হয় এটা ভালো মানের ব্লগ এর একটি বৈশিষ্ট্য।
  • আপনার ব্লগ টি হতে হবে SEO ফ্রেন্ডলি । কারণ আপনার ব্লগ টি  যদি  SEO ফ্রেন্ডলি না হয় তাহলে গুগল বট আপনার ব্লগ ক্রল করতে পারবেনা এতে করে  আপনার পেজটি ইন্টেক্স হবে না। এইজন্য আপনি যখন ব্লগ লিখবেন তখন অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনার ব্লগ SEO ফ্রেন্ডলি কিনা? সে ক্ষেত্রে আপনি ইয়োস্ট plug-in এর  সহযোগিতা নিতে পারেন।
  • যে বিষয়ে ব্লগিং লেখা হয়েছে সে বিষয়ের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কিনা এটা ভালো মানের ব্লগের একটি বৈশিষ্ট্য।

শেষকথা:

আপনি যেহেতু এই বিষয়টাও পড়তেছে তাহলে ধরে নেওয়া যেতে পারে আপনি আমার পরিপূর্ণ লেখাটা পড়েছেন। পরিপূর্ণ লেখাটিতে আমি আপনাদের ধারণা দিতে চেষ্টা করেছি একটি ব্লক কিভাবে লিখলে আপনার সেই ব্লক গুগলে রেংকিং করবে এবং আপনি ভালো মানের টাকা উপার্জন করতে পারবেন। সেই ক্ষেত্রে যদি আপনার কোনো একটি বিষয়ে বুঝতে অসুবিধা হয়,

তবে অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্টে সেকশনে লিখবেন। আমরা আপনাদের পরিপূর্ণ ধারণা দিব। আপনি যেন অনলাইন থেকে ব্লগিং করে মাসে মাসে ভাল অংকের টাকা উপার্জন করতে পারেন। আপনি যদি আমাদের  বিষয়টা ভাল ভাবে পড়ে বুঝে থাকেন তাহলে আমি আপনাদেরকে নিশ্চিত করে বলে দিতে পারি আপনার  এই সাইট থেকে আপনি ভাল অংকের টাকা আয় করবেন।

যদি আরো কি জানার থাকে তাহলে আমাদের সাইট ভিজিট করুন এবং আমাদের লেখা গুলো মনোযোগ দিয়ে বার বার পড়ুন। তাহলেই আপনি খুব সহজেই ঘরে বসে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। ধন্যবাদ কষ্ট করে লেখাটি পড়ার জন্য।

আপনি যদি কৃষি বিষয়ে কোন কিছু জানতে চান তহলে আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি দেখতে পারেন।

আরো পড়ুন:

সুখি মানুষ হওয়ার কৌশল

২.বৈহালা বৈশাখের  ইতিহাস

৩. কবে পহেলা বৈশাখ?

৪. পহেলা বৈশাখের A to Z ধারনা

৫. গুগলের জানা অজানা নানান তথ্য

6. স্কুল লাইভ নিয়ে স্ট্যাটাস

৭. গুগলে মানুষ কোন বিষয়ে বেশি সার্চ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *