Tips & Tricks
Trending

ভাল মেয়ে চেনার উপায় বা বিয়ের জন্য ভালো মেয়ে চেনার উপায়

ভাল মেয়ে বাছাই করার উপায়

ভাল মেয়ে চেনার উপায়: সকল পুরুষ মানুষই চায় একটি ভালো মেয়ে হোক আমার জীবন সাথী। একটি ভালো মেয়ে হোক আমার প্রেমিকা। একটি ভালো মেয়ে হোক আমার বোন। একটি ভালো মেয়ে হোক আমার সন্তান। আর তাই আমরা যদি সেই ভালো মেয়েটাকে চিনতে চাই, তাহলে আমাদের চিনতে হবে তার কিছু লক্ষণ দেখে। কারণ একটি কথা আছে,

ডোরাকাটা দাগ দেখে বাঘ চেনা যায় , মানুষকে কি করে চিনবো বল? । মানুষ চেনা আসলেই বড়ই কঠিন কাজ। আর সেই কঠিন কাজকে আমরা সহজ করেছি। আপনি বেশ কিছু লক্ষণ দেখলে বুঝতে পারবেন এটি একটি ভালো মেয়ে । আর তাই মেয়ে মানুষকে চেনার সহজ উপায় নিয়ে লিখেছি আমাদের এই লেখাটি। আমাদের এই লেখাটা প্রথম থেকে,

শেষ পর্যন্ত পড়লে আপনি সহজেই চিনে নিতে পারবেন একটি ভালো মেয়েকে। আর তার সাথে গড়ে তুলতে পারবেন আপনার প্রেম-ভালোবাসা বা বিবাহের মতো কঠিন বন্ধন। তো চলুন প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত এই লেখাটি পড়ুন আর জেনে নিন একটি ভাল মেয়ে চেনার উপায়।

ভালো মেয়ে চেনার গুরুত্ব

একটি ভালো মেয়ের বৈশিষ্ট চেনার আগে আমাদের জানা প্রয়োজন কেন  আমরা ভালো মেয়ে চিনাবো বা  আমাদের এটা জানা কেন  গুরুত্বপূর্ণ। আমরা জানি আমরা যখন একটি মেয়ের সাথে সম্পর্কে জড়াবো, বা  বিয়ে করাবো, তখন অবশ্যই দরকার একটি ভালো মেয়ের। কারণ একটি ভালো মেয়ে পারে তার সংসারকে সুখে রাখতে।

একটি ভালো মেয়ে পারে একটি ভালো সন্তানের জন্ম দিতে। এজন্যই বলা হয়েছে সংসারে যদি সুখ থাকে তাহলে সেটা হয় বেহেশতের অর্ধেক। আর সংসারে যদি দুঃখ থাকে  তাহলে তা হবে দোযখের অর্ধেক। আমরা চাই আমাদের সংসার জীবন, তথা প্রেমের জীবন যেটাই হোক সেই জীবনটা যেন হয় সুন্দর।

আমরা প্রত্যেকেরই লক্ষ্য থাকবে আমরা একটি ভাল’ মেয়ের সাথে জীবনকে ঝরাবো। আর এই জন্যই মূলত আমাদের ভালো মেয়ে  চেনা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ।

ভাল মেয়ে চেনার উপায় বা বিয়ের জন্য ভালো মেয়ে চেনার উপায়

ভাল মেয়ে চেনার উপায়
ভাল মেয়ে চেনার উপায়

যদি আপনি আপনার জীবনে সুখি হবার জন্য একটি মেয়ের সাথে প্রেম করতে চান অথবা বিয়ে করতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনার প্রয়োজন একটি ভালো মেয়ের। আর এই জায়গায় আমরা জীবনে করে থাকি সবচেয়ে বড় ধরনের ভুল। না চেনে না জেনেই জড়িয়ে পড়ি আমারা সম্পর্কে । এক্ষেত্রে আমরা জীবনে অনেকেই ভুল করে থাকি ।

ভুল করে থাকি একটি ভালো মেয়ে চেনার ক্ষেত্রে। আর আপনাদের সেই ভুল যেন না হয়, তার জন্যই আমরা লিখেছি ভালো মেয়ে চেনার উপায়। আপনি এই লেখাটির পড়লেই চিনে যাবেন একটি ভালো মেয়ে । জেনে যাবেন ভালো মেয়ে কাকে বলে । কোন মেয়েকে আমাদের বিয়ে করা প্রয়োজন। কোন মেয়েকে বিয়ে করলে আমরা জীবনে সুখী হতে পারব।

তাই চলুন জেনে নেয়া যাক ভালো মেয়ে কাকে বলে। ভালো মেয়ে চেনার জন্য প্রয়োজন নিম্নলিখিত বৈশিষ্ট্য। নিম্নলিখিত বৈশিষ্ট্যসমূহ একটি মেয়ের মধ্যে পরিলক্ষিত হলে, তবেই বুঝতে পারবেন এই মেয়েটি ভালো।

জাত বা বংশ পরিচয় দেখে ভাল মেয়ে চেনা

পৃথিবীর প্রতিটা প্রাণী বহন করে তার জিনগত বৈশিষ্ট্য। আর মানুষের ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম নয়। বিশেষ করে মানুষ তাদের বংশের জেনেটিক বৈশিষ্ট্য বহন করে পরবর্তী জেনারেশনের । একই ধরনের আচার আচরন চলে আসে পরবর্তী জেনারেশনে। অর্থাৎ আরো সহজ করে বলতে গেলে আমাদের বাবা-মা যে বৈশিষ্ট্যের, সে বৈশিষ্ট্যগুলো আমাদের মধ্যে পরিলক্ষিত হয়।

তাই একটি ভালো মেয়ে চেনার জন্য আপনার দেখতে হবে তার বাবা-মার আচার-আচরণ । দেখতে হবে তাদের জাত বংশ । বাবা-মা যদি ভাল হয় তাহলে বুঝতে পারবেন মেয়েটি ভাল।এছাড়াও যদি আপনি মনে করেন পরিবার হচ্ছে বাচ্চাদের জন্য নৈতিক শিক্ষার পাঠশালা। এখান থেকেই বাচ্চারা শিক্ষা গ্রহণ করে সকল প্রকারের নৈতিক শিক্ষা ।

যাদের বাবা মা ভালো তারা অবশ্যই বাচ্চাদেরকে নৈতিক শিক্ষা প্রদান করে থাকে। আর এইজন্যই একটি ভালো মেয়ের বাবা-মা অবশ্যই ভালো থাকে । আর যে বাবা মা ভালো তার সন্তান অবশ্যই ভালো থাকে। এভাবেই আমরা বংশ পরিচয় দেখে ভালো মেয়ে চিনতে পারি।

মেয়েটির আচার-আচরণ লক্ষ্য করে

আচরণের মধ্যে ফুটে ওঠে তার বংশের পরিচয়। আর এইজন্যই বলে ’’ব্যবহারে বংশের পরিচয়’ একটি ভালো মেয়ে চেনার জন্য দেখতে হবে তার আচার-আচরণ। যদি দেখা যায় একটি মেয়ের আচার-আচরণ ভালো । অর্থাৎ সে সবার সাথে যখন চলাফেরা করে সবার সাথে ভালো ব্যবহার করে, ভাল আচরণ করে, তাহলে বুঝে নেবেন এই মেয়েটি ভালো হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি । তাই ভালো মেয়ের এটি একটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য।

 চলাফেরার ধরন দেখে ভাল মেয়ে চেনা

কথায় আছে যার চলাফেরা ভালো, সে মানুষ ভালো । মেয়েদের ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম নয়। আমরা একটি ভালো মেয়েকে খুব সহজেই চিনতে পারিনি তার চলাফেরার ধরণ দেখে। আমরা যদি দেখি একটি মেয়ের চলাফেরা ভাল নয় তাহলে বুঝে নিতে হবে এই মেয়েটি ভালো না। একটি ভালো মেয়ে কখনো উশৃংখল ভাবে চলাফেরা করতে পারে না।

তাই চলাফেরা ভালো হলে আমরা খুব সহজেই বুঝতে পরি মেয়েটি ভাল। আর তাই ভাল চলাফেরা ভালো মেয়ের একটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য।

 কথা বলার ধরন বুঝে ভাল মেয়ে চেনা

কথা বলার ধরন দেখেই আমরা চিনে নিতে পারি মানুষকে। আর মেয়ে মানুষকে চিনতে গেলে। তার সাথে কথা বলে, চেনা খুবই সহজ। আর তাই একটি মেয়েকে আপনি খুব সহজেই চিনে নিতে পারবেন তার কথা বলে। যদি তার কথা বলার ধরণ হয় নম্র ভদ্র ভাষায় কথা বলে এবং তার ভাষা থাকে সুমিষ্টি এবং সে কখনো কাউকে কটাক্ষ্য করে বা কষ্ট পায় এ ধরনের কথা বলে না।

সে সবসময় সুন্দর ভাষায়, নম্র ভাষায়, আস্তে আস্তে কথা বলে থাকে। তাই আপনি যদি একটি মেয়েকে চিনতে চান তাহলে তার সাথে কথা বলুন এবং তার কথার মধ্যে যদি এ সকল বৈশিষ্ট্য পরিলক্ষিত হয় তাহলে বুঝে নেবেন এই মেয়েটি একটি ভালো মেয়ে।

পোশাক-পরিচ্ছেদ দেখে ভাল মেয়ে চেনা

যেহেতু মানুষের মনের ভাব প্রকাশ, পায় তার কথাবার্তায় পোশাক-পরিচ্ছদে। তাই একটি ভালো মেয়ে চেনার জন্য তার পোষাক পরিচ্ছেদ অন্যতম একটি বৈশিষ্ট্য। কারণ তার মনের ভাবটা ফুটে উঠেছে তার পোশাকে। সে যদি ভাল মনের বা ভাল একটি মেয়ে হয় । সে কখনোই মানুষ খারাপ বলুক এ ধরনের পোশাক পরিধান করবে না ।

এই জন্য তার পোশাক পরিচ্ছদ দেখেও আমরা চিনে ফেলতে পারব একটি ভালো মেয়ে মানুষ। আর তাই ভাল পোশাক হচ্ছে একটি ভালো মেয়ের অন্যতম বৈশিষ্ট্য।

(আপনি কি সুন্দর করে কথা বলতে চান? কথা বলে সবার মনকে আকর্ষণ করতে চান? জেনে নিতে চান সুন্দর করে কথা বলার কৌশল গুলো। তাহলে জেনে নিতে পারবেন খুব সহজেই আমাদের এই পেইজটি পড়ার মাধ্যমে। আর যার জন্য ক্লিক করতে হবে এখানে)

সে আদর্শ শিক্ষায় শিক্ষিত কিনা

ভাল মেয়ে চেনার উপায়
ভাল মেয়ে চেনার উপায়

কোথায় আছে বিদ্বান দুর্জন হইলেও তা  পরিত্যাজ্য । আদর্শ শিক্ষা একটি মানুষের জন্য অপরিহার্য বিষয়। আমাদের সমাজে বা দেশে অনেক ধরনের শিক্ষা প্রচলিত আছে । কিন্তু সব শিক্ষাই মানুষকে ভাল মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারে না। আর এর জন্য চাই তার আদর্শ শিক্ষা। আর সেই আদর্শ শিক্ষাই পারে একটি মানুষকে ভাল মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে। আর এই কথাটি মেয়ে মানুষেল ক্ষেত্রে অপরিহার্য । একটি ভাল মেয়ের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো তার আদর্শ শিক্ষা থাকতে হবে।

(জেনে নিতে চান জীবনের বাস্তব কথাগুলো । কি থাকে জীবনের বাস্তব কোথায়? আর সেই সকল জীবনের বাস্তব কথা দেখেয়েছি আমাদের এই পেইজটিতে । আপনি জেনে নিন জীবনের সকল বাস্তব কথা গুলো। তার জন্য ক্লিক করুন এখানে)

 তার বন্ধু বা বান্ধবীর আচরন বা সংখ্যা দেখে চেনা

বন্ধু বা বান্ধবীর সংখ্যা বা তাদের আচার আচরণ দেখেও আপনারা একটি ভালো মেয়ে চিনতে পারবেন । কারণ একজন ভালো মেয়ে কখনোই কোনো খারাপ ছেলে বা মেয়ের সাথে বন্ধু বা বান্ধবীর সম্পর্ক গড়ে তুলেনা। আর তাই আপনি যদি একটি ভালো মেয়েকে চিনতে চান। তাহলে তার বন্ধু-বান্ধবের দিকে লক্ষ্য রাখুন, আপনি যদি দেখেন তাদের আচরণ ভালো,

এবং তাদের কথাবার্তা ভালো । তাহলে বুঝতে পারবেন সে মেয়েটিও ভালো। একজন আদর্শ বা ভালো মেয়ে কখনোই অনেকগুলো বন্ধুবান্ধী থাকেনা। বিশেষ করে ভালো মেয়েদের ছেলে বন্ধুর সংখ্যা থাকে অনেক কম। আর যদি দেখেন এই সকল বৈশিষ্ট্য একটি মেয়ের মধ্যে দেখা যায় তাহলে বুঝবেন তার আদর্শগত দিক ভালো । তাহলে বুঝেনিতে পারেন সে মেয়েটিও ভালো।

মেয়েটি অত্যাধিক সোশ্যাল মিডিয়ায় আশক্তি কিনা তা দেখে

বর্তমান যেহেতু আধুনিক যুগ। আর এই আধুনিক যুগের বদৌলতে, আমরা সবাই জড়িয়ে পড়েছি, বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ ফেসবুক নামক এক যোগাযোগ মাধ্যমে। যেখানে সবাই বিচরণ করি সব সময়। আর তাই আপনাদের খেয়াল রাখতে হবে, আপনি যে মেয়েটিকে লক্ষ করেছেন বা চেনার জন্যে চেষ্টা করছেন সে বেশিরভাগ সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অথবা মোবাইলের সাথে ব্যস্ত থাকে কিনা।

কারণ একজন ভালো মেয়ে কখনোই সব সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যস্ত থাকে না। এটা একটি ভালো মেয়ের বৈশিষ্ট হতে পারে না। তাই আপনি যদি ভালো মেয়ে চিনতে চান তাহলে  দেখতে হবে বা লক্ষ্য  রাখতে হবে, সে খুব কম সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যস্ত থাকে কিনা। যদি সে খুব কম সময় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ব্যস্ত থাকে, তাহলে বুঝে নিবেন সে মেয়েটি ভালো।

সহানুভূতিশীলতা যাচাই করে

ভালো মনের মানুষ গুলো সব সময় সহানুভূতিশীল হয়। আর যে সকল মেয়ে মানুষ অনেক বেশি সহানুভূতিশীল, তাদের মন

থাকে কমল নরম তারা পরিবারকে ভালোবাসে থাকে হৃদয় থেকে। আর এই সকল মানুষদেরকে জীবনের সাথে জড়ালে

জীবন হয় সুখময়। জীবন  হয় পরিপূর্ণ। আর তাই আপনি যদি দেখেন একটি মেয়ে অনেক বেশি সহানুভূতিশীল, তাহলে

বুঝে নিবেন মেয়েটা অনেক ভালো। এটি একটি ভালো মেয়ের বৈশিষ্ট।

(আপনি যদি কাউকে ভালোবেসে ফেসবুক স্ট্যাটাস দিতে চান । তাহলে আপনার ভিজিট করতে হবে আমাদের এই

পেইজটি। এখান থেকে পেয়ে যাবেন আপনি ভালোবাসার ফেসবুক স্ট্যাটাস। যেটা আপনি শেয়ার করতে পারবেন আপনার

ফেসবুক ওয়ালে আপনার প্রেমিকার জন্য)

রাশিফল দেখে

একসময় রাশিফল দেখে মেয়ে চেনার প্রচলন ছিল কিন্তু যদিও বর্তমানে ভালো মেয়ে চেনার জন্য রাশিফল কে তেমন একটি

গুরুত্ব দেওয়া হয় না কিন্তু এরই একটি প্রাকৃতিক বিষয় আপনি রাশিফল বিবেচনা করেও মেয়ে চিনতে পারেন সে ক্ষেত্রে

যাদের রাশিফল তুলা, মিথুন,ধনু,বৃষ,মেষ হয় সেই সকল মেয়েরা অনেক বেশি ভালো হয়ে থাকে। আর তাই রাশিফল থেকেও

আপনি ভালো মেয়ে চিনতে পারেন।

(আমরা সুন্দর একটি লেখা লিখেছি। যেটা পড়লে আপনি জানতে পারবেন ধনী হওয়ার সহজ উপায়।  ধনী হওয়ার সহজ

টিপসগুলো জানতে ক্লিক করুন আমাদের এই পেজটিতে ।  জেনেনিন ধনী হওয়ার সহজ উপায় গুলো)

একটি ভালো মেয়ের বৈশিষ্ট

অনেকেই আমরা দ্বিধা দ্বন্দ্বে পড়ি।  একটি ভালো মেয়ে চিনতে গেলে কি কি বিষয় দেখতে হবে? কি কি বিষয় থাকলে সেই

মেয়েটিকে আমরা ভালো বলতে পারি? কি কি গুনের  অধিকারী হতে হবে? আমাদের মনে থাকে হাজারো প্রশ্ন।  আসুন

আমরা অল্প কয়েকটি বৈশিষ্ট্য দেখেই খুব সহজেই চিনে নিব একটি ভালো মেয়েকে। আর সেই সকল বৈশিষ্ট্য আমি দেখাবো

নিচে যা দেখলেই চিনে নিতে পারবেন একটি ভালো মেয়েকে। আমরা উপরে ভালো মেয়ে চেনার অনেকগুলো বৈশিষ্ট্য

দিয়েছি এর সাথে আর অল্প কয়েকটি বৈশিষ্ট্য থাকলেই, আপনারা একটি মেয়েকে ভালো মেয়ে হিসেবে বলতে পারবেন।

যেগুলো হলো নিম্নরুপ

  • কথা কাজের মিল থাকে সবসময়।
  • একাধিক ছেলের সাথে প্রেম করে না সম্পর্কে জড়ায়না।
  • সম্পর্কের মর্যাদা বুঝে অর্থাৎ যাকে ভালবাসে তাকে জীবন দিয়ে ভালবাসে তার জন্য সবকিছু করতে পারে।
  • অবৈধ কোন কাজে জড়ায়না।
  • রাত করে বাড়ি ফেরে না।
  • দিনের বেশিরভাগ সময় বাহিরে থাকে না।
  • অত্যাধিক অহংকার করে না ।
  • কথায় কথায় রাগ করে না।
  • অধিক ফুটানি দেখায় না।
  • রূপের অহংকার করে না ।
  • বাবা মার অবাধ্য হয় না।
  • বড়দের সম্মান করে ।
  • ছোটদের স্নেহ করে ।
  • সবসময় ধর্ম-কর্ম পালনে ব্যস্ত থাকে ।
  • বংশগৌরব দেখায় না।

(আমরা সব সময় কৃষি বিষয়ক আপডেট ভিডিও দিয়ে থাকি। আমাদের এই চ্যানেলটিতে। আপনি যদি চান, কৃষিবিষয়ক

আপডেট ভিডিও দেখতে তাহলে দেখতে পারেন আমাদের এই চ্যানেলটি)

শেষ কথা

আপনি যদি দেখেন একটি মেয়ের মধ্যে উপরোক্ত বৈশিষ্ট্যগুলো আছে তাহলে ধরে নিতে পারেন সেই মেয়েটি ভালো। সেই

মেয়েটির সাথে আপনি জড়িয়ে নিতে পারেন প্রেমের অথবা বিবাহের বন্ধনে। আমি আপনাকে নিশ্চিত করে বলে দিতে পারি

উপরের বৈশিষ্ট পরিলক্ষিত মেয়েগুলো আপনার জীবনে বয়ে আনবে আশীর্বাদ। আপনার জীবনকে করে দিবে স্বর্গময়।

উপরোক্ত লেখাটি যদি আপনার কাজে লেগে থাকে অবশ্যই আপনি আমার এই লেখাটি বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ

মাধ্যমে শেয়ার করবেন। ছড়িয়ে দিবেন সবার মধ্যে, সবাই যেন আমরা দেখতে পারি। লেখাটি পড়ে যদি আপনার ভালো

লেগে থাকে অবশ্যই কমেন্টে করে জানাবেন । আরো কোন বিষয়ে জানতে ইচ্ছে হলে সেটাও লিখতে পারেন আমাকে।

আমি পরবর্তীতে সেই বিষয়টি নিয়ে লিখব। ধন্যবাদ আপনাকে কষ্ট করে লেখাটা প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ার জন্য।

আরো পড়ুন:

. সুন্দর কথা বলার কৌশল।

২. গুগলের জানা অজানা নানান তথ্য

৩. স্কুল লাইভ নিয়ে স্ট্যাটাস

৪. গুগলে মানুষ কোন বিষয়ে বেশি সার্চ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *