Trending

মুখের দুর্গন্ধ দূর করার উপায়

মুখের দুর্গন্ধ দূর করার সহজ উপায়

মুখের দুর্গন্ধ দূর করার উপায়: মুখের দুর্গন্ধ এটা খুবই বাজে গন্ধ। কথায় বলে পায়খানার গন্ধ সহ্য করা যায় কিন্তু মুখের

গন্ধ সহ্য করা কষ্টকর। সাধারণত যাদের মুখে গন্ধ থাকে তারা  অনেক সময় হয়তো বুঝতে পারে না। কিন্তু তার আশেপাশের

লোক গুলো ঠিকই বুঝতে পারে এর প্রভাব। তারা খুবই বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে থাকে।  আর বেশিরভাগ লোক তাদের

লজ্জার কারণে  সেই কথাটি তাকে বলে না।

তাই আমাদের যাদের মুখে দুর্গন্ধ হয়, তাদেরই বুঝে নিতে মুখের দুর্গন্ধ টির ব্যাপারে। আর মুখের দুর্গন্ধ যদি আমরা  দূর

করতে না পারি তাহলে মানুষের সামনে যাওয়া আমাদের জন্য লজ্জাজনক বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। আমরা কারো সামনে কথা

বলতে পারিনা মুখে দুর্গন্ধের এই লজ্জায়।

আর তাই আসুন আজকে আমি এমন কিছু সাধারন উপায় বলে দিব যার দ্বারা আপনি সহজেই মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে

পারবেন। চলুন সেই সব বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

সূচিপত্র

 মুখে দুর্গন্ধ হবার কারণ/ নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ কেন হয়?

মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার জন্য শুধু একটি কারণ দায়ী নয়। অনেকগুলো বিষয়ের কারণে আপনার মুখের দুর্গন্ধ হইতে পারে। আর

যে সকল বিষয় মুখের গন্ধ হওয়ার জন্য দায়ী, সেই সকল বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

মুখের ডাক্তারদের মতে  মুখের ভেতরে কলোনি তৈরি করে কিছু ব্যাকটেরিয়া। এগুলো যখনই সুযোগ পায় ক্ষতি করে

দাঁতের, একই সাথে মুখে সৃষ্টি করে গন্ধ।

কিছু সময়  মুখে গন্ধের জন্য খাবারও দায়ী। যেমন আপনি যদি পেঁয়াজ, রসুন, চিজ, সোডা, কমলা লেবুর রস খান বা

মদ্যপান ও ধূমপান করেন তাহলে আপনার  মুখে দুর্গন্ধ বের হতে পারে। সাধারণত  এই  সমস্যাটি  সাময়িক হয়ে থাকে। যদি

আপনি বাজার থেকে যে কোন ভালমানের মাউথ ওয়াশ কিনে ব্যবহার করেন বা ভাল মানের চুইয়িং গাম খান যে গুলো

মুখের দূগন্ধ দূর করতে সহায়তা করে। যে খাবার খাওয়ার কারণে মুখের গন্ধ হয়েছে সেগুলো হজম হয়ে গেলেই মুখের গন্ধ চলে যাবে।

আমরা অনেকেই জানিনা  সিগারেট বা ধূমপান শুধু স্বাস্থ্যেরই পক্ষে ক্ষতিকরই নয়, মুখের দুর্গন্ধের জন্যেও দায়ী। ঠিক মতো

দাঁত না মাজা বা ফ্লস না করলেও জীবাণু তৈরি হয় মুখে। তাতে দুর্গন্ধ হয় সহজেই।

কফি বা যে কোনও ধরনের অ্যালকোহলের মতো পানীয়ের স্বাদ মুখে অনেক ক্ষণ থেকে যায়। তা থেকেই দুর্গন্ধ তৈরি হয়।

এই জাতীয় ক়ড়া পানীয় মুখে লালারস তৈরির ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। সেই থেকেই মুখের দুর্গন্ধ।

মুখের দুর্গন্ধের জন্য শরীরের যে সমস্যাগুলো দায়ী

তবে যদি দেখেন আপনার মুখের দুর্গন্ধ এটা একটি প্রতিদিনের সমস্যায় পরিণত হয়ে আছে। তা হলে আপনার বুঝতে হবে

  সেটা শরীরে অন্য সমস্যার কারণে হতে পারে। আর যে সকল শারীরিক সমস্যার কারনে এটা হয়ে থাকে সেগুলো হলো।

 আমাদের মুখের লালারস মুখের ভিতরে থাকা সব রকম জীবাণু পরিস্কার করে ফেলার ক্ষেত্রে খুবই  কার্যকরী ভূমিকা পালন

করে। আর  তাই আপনার  মুখ কোন কারণে শুকিয়ে গেলেই দুর্গন্ধ বের হয়। আরো কিছু কারণে মুখে গন্ধ হতে পারে

সেগুলো হলো-টনসিল সমস্যা,দাঁতের মারির রোগ, দাঁত ক্ষয়, পেটের অ্যাসিডিটি, পায়খানায় কোষ্ঠকাঠিন্য এবং খাবার

হজমের সমস্যা হলেও অনেক সময় মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করার টুথপেস্ট

বর্তমানে বাজারে অনেক টুথপেস্টে আছে, যেগুলো মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে সহায়তা করে। আমরা যদি নুন্যতম দুইবার

খাবার পরে, আমাদের দাঁত ভালোভাবে ব্রাশ করি, এবং দাঁতের ফাঁকে জমে থাকা ময়লা গুলো ভালভাবে পরিষ্কার করি

তাহলে আমাদের মুখের দুর্গন্ধ  অনেক কমে যাবে।

আর তাই দাঁত ব্রাস করার  জন্য যে টুথপেস্ট ব্যবহার করবেন সেটা অবশ্যই যেন ফ্লোরাইড সম্পন্ন হয়। কারণ বাজারে

অনেক ধরনের টুথপেষ্ট আছে যেগুলো কার্যকরী না। তাই আপনি অবশ্যই ভালো মানের টা  কিনতে হবে।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করার ঔষধের নাম

অনেকেই জানতে চায় মুখের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য কোন ধরনের ওষুধ আছে কিনা? তাদের জন্যই মূলত বলা। আপনার

মুখের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য আপনি ভাল মানের মাউথ ওয়াশ ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু সেটা দীর্ঘমেয়াদী ব্যবহার করা

কোনভাবেই সঠিক নয়। তাই আপনি স্বল্প সময়ের জন্য নিম্নোক্ত মাউথ ওয়াসটি ব্যবহার করতে পারেন।

 এসেন্সিয়াল অয়েলযুক্ত মাউথ ওয়াশ ব্যবহারে করার কারনে মুখের দুর্গন্ধ কমে যায়। মাউথ ওয়াশে টি ট্রি অয়েল,

পিপারমেন্ট অয়েল এবং লেমন অয়েল থাকলে তা খুবই উপকার দেয় মুখের দুর্গন্ধ দূরীকরনে।

প্রাকৃতিক উপায়ে মুখের  দুর্গন্ধ দূর করার উপায়

যদি আমরা একটু সচেতন হই, তাহলে আমরা প্রাকৃতিক ভাবে খুব সহজেই দূর করতে পারি আমাদের মুখের দুর্গন্ধ কে।

কারণ অনেক সময় আমরা ওষুধ কেনার সামর্থ্য বা ইচ্ছার অভাব থাকে যার কারণে দিনের পর দিন বহন করতে হয় এই

বাজে গন্ধকে। কিন্তু আপনি যদি একটু সচেতন হন, তাহলে আপনার ঘরে থাকা উপকরণ দিয়েই খুব সহজে আপনি মুখের

দুর্গন্ধ দূর করতে পারবেন।

আর যে সকল উপাদান দিয়ে আপনার মুখের এই বাজে দুর্গন্ধ দূর করতে পারবেন, সেগুলো নিচে বিস্তারিত বর্ণনা করা হলো

। আপনি যেকোনো একটি ব্যবহার করে আপনার মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে পারবেন।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে  লবঙ্গের ব্যবহার

যদি আপনার মুখে বাজে গন্ধ আসে তাহলে আপনি ব্যবহার করতে পারেন লবঙ্গ । এটাতে রয়েছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল

প্রোপাটিজ, যা মুখে গন্ধ তৈরি করা ব্যাকটেরিয়াদের মেরে ফেলে। মুখে একটি লবঙ্গ নিয়ে চুসতে থাকুন। দেখবেন গন্ধ

একেবারে চলে গেছে।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে লেবুর ব্যবহার

খুবই সহজ খুবই কার্যকরি উপায় হলো এটি। আপনি শুধু  হালকা গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে নিবেন। পানিতে মেশানো

সেই রস সহ পানি মুখে কুলকুচি করুন দিনে দুইবার। রাতে ঘুমনোর আগে এবং সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর। তাতে মুখে

দুর্গন্ধের সমস্যা অনেকটাই কমবে।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে নারকেল তেলের ব্যবহার

বাজারে যে সকল নারকেল তেল পাওয়া যায় তার মধ্যে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান আছে যা নিমিষেই গন্ধ সৃষ্টি করা

ব্যাকটেরিয়াদের মেরে ফেলে। ফলে মুখের গন্ধ দূর হতে সময় লাগে না। এক্ষেত্রে এক চামুচ নারিকেল তেল মুখে নিয়ে

ভালো করে কুলি করুন। কম করে ৫ মিনিট করতে হবে। তার পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে মুখটা।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে মৌরি বা জিরার ব্যবহার

আপনার মুখের গন্ধ দূর করতে মৌরি বা জিরার ব্যবহার করতে পারেন। এটা ভাল ফলদেয় মুখের গন্ধ দূর করতে। আপনি

যে ভাবে এটা ব্যবহার করবেন আর তাহেলা মৌরি বা জিরা একটু ভেজে রাখুন। দুপুরের খাওয়ার পর বা রাতের খাওয়ার পর

একটুখানি মৌরি বা জিরা চিবিয়ে নিলেও মুখের দুর্গন্ধ অনেকটাই দূর হবে।

প্রাকৃতিক ভেষজ দ্বারা মুখের দুর্গন্ধ দূর করার উপায়

যদি আপনার হাতে সময় থাকে তাহলে  গাজর, পালং শাক এবং শসা দিয়ে মিক্সিতে রস বানিয়ে নিন। আর আপনার বানানো

এই রস আপনার মুখের  দুর্গন্ধের সমস্যা দূর হওয়া পর্যন্ত এই রস দিনে এক বার করে খেতে হবে। দেখবেন কিছু দিনের

মধ্যেই আপনার মুখের বাজে গন্ধ দূর হয়ে গেছে।

খাবার ভাল করে চিবিয়ে খাওয়ার মাধ্যমে মুখের দুর্গন্ধ দূর

বেশির ভাগ মানুষই খাবারকে ভালভাবে চিবিয়ে খায়না। যার কারনে হজম শক্তিতে ব্যাগাত ঘটে এর ফলে পেটে দেখা দেয়

বদহজম ও গ্যাস যার কারণে মুখ থেকে বের হয় গন্ধ। আর তাই আপনি যদি  অল্প করে খাবার মুখে নিয়ে সেগুলোকে

প্রতিবার  ভাল করে চিবিয়ে খান তবে আপনার বদহজম তথা পেট ফাঁপার সমস্যা হবেনা যার কারণে আপনি মুখের দুর্গন্ধ

থেকে বাঁচতে পারবেন।

এছাড়াও খাবার খাওয়ার সময়  পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি খান এতে করে মুখে খাবার জমে থাকবেনা মুখেও আর গন্ধ হবেনা।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে পুদিনা পাতার ব্যবহার

খুবই সহজ উপায় হচেছ এটি কোন প্রকারের জামেলা নাই । আপনার বাড়িতে থাকা পুদিনা পাতা অথবা বাজার থেকে কিনে

আনা পাতা দিয়ে খুব সহজেই দূর করতে পারবেন আপনার মুখের গন্ধ। এটাকে  প্রাকৃতিক  মাউথ ফ্রেশনার বলা হয়। রোজ

নিয়ম করে ২-৩ টে পুদিনা পাতা চিবিয়ে খান। দেখবেন মুখে দুর্গন্ধর সমস্যা পালাবে।

বিভিন্ন দ্রব্যের মিশ্রণে মুখের দুর্গন্ধ দূর

আপনি যদি প্রতিদিন এই সকল উপাদান যেমন এক কাপ পানিতে দুই চা-চামচ পরিমাণ বেকিং সোডা তার সাথে আট-নয়টি

পিপারমিন্ট-পাতা ও দুই চামচ চা-পাতার তেল ভালোবাবে  মিশিয়ে  ব্যবহার করেন তাহলে মুখের গন্ধ দূর হবে।

দ্বিতীয় উপায়টি হতে পারে আপনি যদি দুই চা-চামচ অ্যাপল সিডার ভিনেগার এক কাপ লবণপানি ও ভ্যানিলা এসেনশিয়াল

অয়েল একটি বাটিতে মেশান। এটি বোতলে রেখে দিতে পারেন। এ মিশ্রণ ব্যবহার করে নিয়মিত মুখগহ্বর পরিষ্কার করতে

পারেন এতে করেও আপনার মুখের গন্ধ চলে যাবে।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে নিমের মাজন/ নিমের ব্রাস ব্যবহার

যারা টাকা খরচ করতে চাননা বা আশেপাশে থাকা জীনিস দিয়েই মুখের গন্ধ দূর করতে চান তাদের জন্য এই থেরাপি।

আপনার  মুখের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া  দূরে করতে নিমের মাজন বা নিমের ব্রাস ব্যবহার করতে পারেন। এটার ব্যবহার

বহুকাল আগে থেকেই মুখের সুরক্ষায় প্রাকৃতিক প্রতিষেধক হিসেবে নিম ব্যবহার হয়ে আসছে।

ইসলামে নিমের ব্রাস ব্যবহার করা সুন্নত। তাছাড়াও  নিম দাঁতের গোড়া শক্ত করে ও মুখের গন্ধ দূর করতে খুবই কার্যকরি

ভূমিকা পালন করে।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে লবনের ব্যবহার

আমরা অনেকেই আছি মুখের এই গন্ধনিয়ে  বেশি ঝামেলায় যেতে চাই না, আর তাদের জন্য হলো খুব সহজেই যে কাজটি

করলে আপনার মুখের বাজে গন্ধটি দূর করতে পারবেন তাহলো। আপনি  হালকা গরম পানিতে এক চামচ লবণ মিশিয়ে তা

প্রতিদিন নিয়মি কুলি করতে পারেন। এতে করে দেখা যাবে আস্তে আস্তে আপনার  মুখের দুর্গন্ধ দূর হবে।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে এলাচের ব্যবহার

অনেক সময় বিভিন্ন কারনে মুখ থেকে প্রচুর দুগন্ধ চলে আসে। যা আমাদের নিয়ন্ত্রনের বাইরে চলে যায়। আর এই সমস্যা

নানা কারণে হতে পারে। আর তাই আপনি যদি তৎক্ষণাৎ এই সমস্যার সমাধান চান, তাহলে আপনি খুব সহজেই এর

সমাধান করতে পারেন । আর তাহলো আপনার প্রতিদিনের রান্নায় ব্যবহার করা  এলাচ। যা প্রয়োজন অনুযায়ী আপনার

মুখে রেখে দিন। দেখবেন অল্প সময়ের মধ্যেই দুর্গন্ধ একেবারে কমে যাবে।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে মেথির ব্যবহার

যদি আপনার মুখে এই সমস্যা হয়ে থাকে তবে আপনি  এক চামচ মেথি বীজ নিয়ে পরিমাণমতো পানির সঙ্গে মিশিয়ে চুলায়

ভালভাবে  সেগুলো ফোটান। তার পর বীজগুলো পানি থেকে ছেঁকে নিয়ে সেই পানি চায়ের মতো পান করতে থাকুন ।

এভাবে যদি আপনি  কয়েক দিন করেন তাহলে দেখবে আপনার মুখের গন্ধ দূর হয়ে গেছে। আর তাই দেরি নাকেরে যদি

অপনার এই ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে তাহলে অপনি মেথির ব্যবহার করতে পারেন।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে দারুচিনির ব্যবহার

এটা মুখের গন্ধ দূর করতে খুবই ভাল একটি উপাদান। আপনার মুখের ভেতরে তৈরি হওয়া জীবাণু মেরে ফলতে দারুচিনির

কোনো জুড়ি নেই। তাই যদি কোন সময় আপনার  মুখ থেকে গন্ধ বের হয় তাহলে এক চামচ দারুচিনির পাউডারের সঙ্গে

পরিমাণমতো পানি সেগুলো ভালভাবে মিশিয়ে গরম করে নিন। তার পর সেই পানি পরিস্কার করে নিয়ে ‍দিনে দুইবার

কুলকুচি করুণ। দেখবেন আস্তে আস্তে আাপনার মুখের গন্ধ চলে গেছে।

কোন সময় আপনি মুখের গন্ধের জন্য ডাক্তারের কাছে যাবেন

অনেক সময় দেখা যায় আমাদের বড় ধরনের সমস্যা হলেও ডাক্তারের কাছে যােই না । কিন্ত পরবর্তীতে তার জন্যয

আমাদের বড় ধরনের ক্ষতির সন্মুখিণ হতে হয়। আর তাই আপনি যখন দেখবেন আপনার মুখের দুর্গন্ধের সাথে সাথে আরো

বেশ কিছু লক্ষণ পরিলক্ষিত হয় তাহলেই আপাকে একজন ভাল ডেন্টিস্টের কাছে যাওয়া প্রয়োজন। আর সেই লক্ষণগুলো হলো।

  • নিঃশ্বাসে তীব্র পচা দুর্গন্ধ।
  • দৃশ্যমান সাদা আবরণ।
  • মুখের দাঁত ও মাড়ি থেকে রক্ত বের হওয়া।
  • মুখের লালার পরিমাণ হ্রাস পেলে।

শেষকথা:

আমরা নিজেরা নিজেদের মুখের বাজে গন্ধ বুঝতে পারি না । কিন্তু এটা খুবই বিরক্তিকর বিষয়। যখন অন্যের মুখের দুর্গন্ধ

আসে তখন বোঝা যায় এটা কতটুকু খারাপ। আর তাই আমাদের নিজেদের সচেতন হতে হবে এই মুখের দুর্গন্ধের ব্যাপারে।

তাই আসুন উপরোক্ত যে কোন একটি পদ্ধতি অনুসরণ করে যেভাবেই হোক আমরা আমাদের নিজেদের মুখের দুর্গন্ধ দূর করে নেই।

এই লেখা পড়ে যদি আপনার ভালো লেগে থাকে এবং আপনি যদি এই লেখার দ্বারা উপকৃত হয়ে থাকেন। তবে  আপনাকে

অনুরোধ করছি অবশ্যই আপনি এই লেখাটির বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করবেন। জানিয়ে দিবেন আপনার বন্ধু

বান্ধবকে । ধন্যবাদ কষ্ট করে লেখাটি পড়ার জন্য।

(কৃষিবিষয়ক ভিডিও দেখতে চান? তাহলে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেল টি। আর দেখতে থাকুন কৃষি বিষয়ক সকল আপডেট ভিডিও)

আরো পড়ুন:

. সুন্দর কথা বলার কৌশল।

২. গুগলের জানা অজানা নানান তথ্য

৩. স্কুল লাইভ নিয়ে স্ট্যাটাস

৪. গুগলে মানুষ কোন বিষয়ে বেশি সার্চ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.