Uncategorized
Trending

ইতালি থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠানোর উপায়

How to send money from Italy to Bangladesh

ইতালি থেকে টাকা পাঠানো: সবেইকে আবারও শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি অনেক প্রয়োজনীয় একটি লেখা । যা

আপনাদের জন্য খুবই গুরত্বপূর্ণ ও তথ্যমূলক লেখা ইতালি থেকে টাকা পাঠানো । যারা মূলত ইতালিতে চাকুরী, কাজের

জন্য, ব্যবসা করার জন্য বা স্থায়ী ভাবে বসবাস করছেনে। তাদের জন্য আজকে আমি এই গুরুত্বপূর্ণ  বিষয় তুলে ধরব । যে

বিষয়টা আপনাদের অনেক কাজে লাগবে। এটা ইচ্ছে করলে আপনার ফেসবুকেও শেয়ার করে সংরক্ষন করে রেখে দিতে

পারেন্। তাহলে একসময় দেখবেন আপনার অনেক বড় কাজে লাগবে।

কেন আমরা বৈধ ভাবে দেশে টাকা পাঠাবো?

যদি আপনি চিন্তা করে থাকেন বিদেশ থেকে অবৈধ ভাবে বাংলাদেশে দেশে টাকা প্রেরণ করবেন তবে আমি বলব আপনি

ভুল করছেন। কারণ একদিক থেকে যেমন দেশের অর্থনৈতিক অবস্থাকে খারাপের দিকে ঠেলে দেয়া হয়। অন্যদিকে

ব্যক্তিগতভাবেও আপনি যে কোন সময় পড়ে যেতে পারেন প্রতারণার ফাঁদে। যারা ইতালি থেকে হুন্ডির মাধ্যমে টাকা

বাংলাদেশে পাঠিয়ে থাকে। এদের মধ্যে কিছু সংখ্যক আছে যারা বিভিন্ন ভাবে প্রতারণা করে থাকে। অনেক সময় টাকা

পয়সা না দিয়ে পালিয়ে যায়। তাই বৈধ ভাবে টাকা পাঠিয়ে আপনার পরিবার ও দেশের নিরাপ্তা নিশ্চিত করুন।

ইতালি থেকে টাকা পাঠানোর যে সকল মাধ্যম আছে।

আপনি চাইলে খুব সহজেই ব্যাংক এবং মোবাইল আ্যাপ ব্যবহার করে খুব কম সময়ের মধ্যেই বাংলাদেশে টাকা পাঠিয়ে

দিতে পারেন। তার জন্য আপনাকে অনেক বেশি জামেলা করতে হবে না। তবে ইতালি থেকে যে সকল মাধ্যমে টাকা

পাঠানো যায় তার মধ্যে যে সকল মাধ্যম সহজ এবং ভাল সেগুলোই শুধু আলোচনা করার চেষ্টা করবো। কারণ আমরা

কেহই চাইনা আপনার কষ্টের টাকা পাঠাতে গিয়ে অনেক বেশি খরচ বা জামেলা পোহাতে হয় । নিচে কিছু আ্যাপ এবং

ব্যাংকের তথ্য বিস্তারিত ব্যাখা করা হলো।

ইতালি থেকে বিকাশের (bkash) মাধ্যমে টাকা পাঠানো

আপনি ইচ্ছে করলে খুব সহজেই বিকাশের মাধ্যমে ইতালি থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে পারেন। এই জন্য আপনাকে

অনেক বেশি কষ্ট্য করতে হবে না। মাত্র কয়েকটি ধাপ অনুসরণ করেই খুবই সহজেই ইতালি থেকে বাংলাদেশে আপনার

প্রিয়জনের কাছে টাকা পাঠাতে পারবেন। এর জন্য আপনি দুটো ধাপ অনুসরণ করতে পারেন। একটি হলো বিকাশ আ্যাপ

ব্যবহার করে আরেকটি হলো এজেন্ট এর কাছে গিয়ে। দুটো পদ্ধতিই খুবই সহজ। তবে আর দেরী কেন? খুব সহজেই বিকাশ

ও ডাচ বাংলা ব্যাংকের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠান।এছাড়াও বিদেশে এই প্রতিষ্ঠানের পক্ষে যে সকল পার্টনার রয়েছে তারা

হলো MTO:- Brac Saajan, NEC Money, World, আর ব্যাংক partner: Brac Bank, Bank Asia, MTB.

Taptap Send মোবাইল আ্যাপের এর মাধ্যমে ইতালি থেকে টাকা পাঠানো

এই মোবাইল আ্যাপ দিয়ে আপনি যে কোন সময় বাংলাদেশের যে কোন মোবাইলে টাকা পাঠাতে পারবেন। এর জন্য

সবচেয়ে বড় যে সুবিধা হলো তা হলো । আপনার বাড়তি কোন ধরনের ফি দিতে হবে না । যদি আপনি প্রথম টাকা পাঠান

তবে উল্টো আরো বোনাস পাবেন। একই সাথে যেহেতু এটা সরকারী ভাবে বৈধ তাই সরকারের দেয়া ২% বোনাসও সাথে

পেয়ে যাবেন। আর আপনাদের সুবিধার জন্য নিচে আ্যাপটির লিংক দিয়ে দিলাম । অল্প  কয়েকটি ধাপ অনুসরণ করেই এর

মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই টাকা বাংলাদেশে পাঠাতে পারবেন। আ্যাপটি ইন্সটল করার জন্য নিচের লিংকে ক্লিক করুন

এবং নির্দেশ মত কয়েকটি ধাপ অনুসরণ করুন। দেখবেন খুব সহজেই আপনি বাংলাদেশে কয়েক মিনিটের মধ্যে টাকা

প্রেরণ করতে পারছেন।

 https://taptapsend.page.link/Sadiaand

আর এই আ্যাপ ব্যবহারের জন্য একটি দিক নির্দেশনা ভিডিও আছে আপনি কিভাবে এই আ্যাপটি ব্যাবহার করবেন । যদি

আপনি মনে করেন দেখতে পারেন। ভিডিও দেখার জন্য এখানে( ক্লিক করুন)।

 Remitly App এর মাধ্যমে দেশে টাকা প্রেরণ

 যদি আপনি ইতালি থাকেন আর বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে চান তবে আপনি নিশ্চিন্তে এই মোবাইল আ্যাপটি ব্যবহার করে

দেশে টাকা পাঠাতে পারেন। খুবই ভাল একটি মাধ্যম টাকা পাঠানোর জন্য। যে কেউ যে কোন সময় খুবই সহজে

বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে পারবেন। আর এর জন্য আপনাকে যা করতে হবে তাহলে এই সাইটে গিয়ে আপনাকে একাউন্ট

করতে হবে। এবং অল্প কয়েকটি ধাপ অনুসরণ করেই বোনাস অফার সহ এবং বাংলাদেশী সরাকার কৃত ২% বোনাস সহ

বাংলাদেশ হতে টাকা গ্রহণ করতে পারবেন। যদি এর পরেও আপনাদের এই আ্যাপ সম্পের্কে আরো ধারনার দরকার থাকে

তবে আমাদের এখানে (ক্লিক করুন) এবং ভিডিও দেখে বিস্তারিত দেখে নিন।

ইতালি থেকে টাকা পাঠানো এর শেষ কথা

ইতালি থেকে  বাংলাদেশ টাকা পাঠানোর নিয়ম লেখাটি পড়ে আপনাদের অনেক উপকার হবে। এই প্রত্যাশানিয়েই

আজকের মত এখানে বিদায় নিচ্ছি। সবাই ভাল থাকবেন। প্রবাশি ভাইয়েরা আপনাদের বিশেষ করে হাজারো সালাম কারণ

আপনারা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের চাকা সচল রাখার জন্য সবসময় কাজ করে যাচ্ছেন। আবার  কথা হবে নতুন কোন

বিষয় নিয়ে। সুস্থ্য থাকুন ভালথাকুন আল্লাহ হাফেজ।

আরো পড়তে পারেন:

১. দুবাই টাকার রেট

২. দুবাইয়ের ১০০০ দিরহাম সমান কত?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *