Trending

অনলাইনে পণ্য বিক্রি অ্যামাজন

Amazon

অনলাইনে পণ্য বিক্রি অ্যামাজন: নেট দুনিয়ায় অন্যান্য ওয়েবসাইটের মত অ্যামাজন একটি জনপ্রিয়

ওয়েবসাইট। এখানে প্রতিদিন লাখ লাখ  মানুষ তার পূর্ণ কেনাবেচা ব্যস্ত থাকে। তাই অনেকের কাছেই বর্তমানে অ্যামাজন

একটি জনপ্রিয় নাম। তাই  আসুন সেই অ্যামাজন সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করি এবং কিভাবে আপনি অ্যামাজনে

ওয়েবসাইট খুলে মাসে লক্ষ টাকা আয় করতে পারেন সে বিষয়টি বিস্তারিত বর্ণনা করো।

অ্যামাজন এর মালিক কে

অ্যামাজন হচ্ছে একটি ইলেকট্রনিক বাণিজ্য কোম্পানি। যার প্রধান সদর দপ্তর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনের সিয়াটনে

অবস্থিত। এটা মূলত ইন্টারনেটভিত্তিক খুচরা বিক্রেতা। যার যাত্রা শুরু হয় ১৯৯৪ সালে জেফ বেজোস এর মাধ্যমে। আজও

এর পরিধি দিন দিন শুধু বৃদ্ধি পাচ্ছে। যে খান থেকে আয় করছে লাখো মানুষ।

অ্যামাজন কোন দেশের কোম্পানি

আমরা পৃথিবীর অনেক দেশেই  অ্যামাজনের কার্যক্রম পরিলক্ষিত হয় তার মধ্যে যে সকল দেশে বর্তমানে এই কম্পানির

কাজ আছে তা যদি আমরা  অঞ্চলভিত্তিক ভাগ করি তাহলে দেখা যাবে ।

এশিয়া মহাদেশে আছে: গণচীন, ভারতের, ও জাপান।

ইউরোপ এর মধ্যে হচ্ছে:  ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, নেদারল্যান্ড, স্পেন ও  যুক্তরাজ্য ।

উত্তর আমেরিকা যে সকল দেশে অ্যামাজনের অফিস আছে সেগুলো হলো:  কানাডা, মেক্সিকো  ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

ওশেনিয়ায় আছে:  অস্ট্রেলিয়া।

দক্ষিণ আমেরিকা :  ব্রাজিল।

 

অ্যামাজন শপিং

অ্যামাজন মূলত একটি ইন্টারনেট ভিত্তিক ব্যবসা। যেখানে দোকানদার গন তার দোকানের মাল উপস্থাপন করে খুচরা ভাবে

বিক্রি করে। যদি আমরা সহজভাবে বলতে চাই অ্যামাজন মূলত বড় পরিসরে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র দোকানদারকে উপস্থাপন করে।

আর সেই পণ্য বিক্রি করার বর্তমান এই প্রক্রিয়া মাঝখানে কিছু মানুষ ব্রোকার হিসেবে নিজেদেরকে উপস্থাপন করার

মাধ্যমে পণ্য বিক্রি করে দিয়ে কমিশন হিসেবে টাকা আয় করতে পারে। অ্যামাজনের মূলত ইনকাম হচ্ছে পণ্য বিক্রির

কমিশন । অ্যামাজন মূলত পণ্য বিক্রির কাজ পরিচালনা করে থাকে।

কিভাবে আয় করে- Amazon Income

আমরা যদি বলতে চাই অ্যামাজনের মূল আয় কোথায়? অ্যামাজন মূলত পণ্য বিক্রির যে কমিশন সেখান থেকে তার মূল

আয় করে থাকে। তা ছাড়াও কিছু পরিসেবা প্রদানের মাধ্যমে অ্যামাজন আয় করে থাকে। শুধু তাই নয় নিজে যে রকম আয়

করে সাথে সাথে কিছু মানুষকে পণ্য বিক্রির সহযোগীতা করার জন্য কমিশন প্রদান করে দিয়ে তাদের আয়ের পথ সুগম

করে।

আমাজন একাউন্ট

আপনি খুব সহজেই অ্যামাজনে গিয়ে একাউন্ট খুলতে পারবেন। তো সেখানে একাউন্ট খুলতে গেলে প্রথমে আপনার

অ্যামাজনের হোম পেজে গিয়ে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং একটা অপশন আছে। সেই অপশনে গিয়ে আপনার প্রয়োজনীয়

তথ্য প্রদানের মাধ্যমে আপনি সাইন আপ করলে আপনি অ্যামাজনের একজন মধ্যস্থতাকারী হিসেবে বিবেচিত হবেন।

যা পরবর্তীতে আপনি সেখানে আপনার বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে পণ্য বিক্রি করে দিতে পারলে সেখান থেকে একটি নির্দিষ্ট হারে

আপনি কমিশন পেতে থাকবেন। এভাবে আপনি অ্যামাজন অ্যাকাউন্ট খুলে মাসে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

শেষ কথা

পরিশেষে বলতে পারি অনলাইনে পণ্য বিক্রি অ্যামাজন বর্তমানে ইন্টারনেট দুনিয়ার আয়ের বড় একটি  মাধ্যম যেখানে

অনেকেই মাসে লক্ষাধিক টাকা ইনকাম করে আসছে। তাই আপনারা অ্যামাজন সম্পর্কে আরও কিছু জানতে চাইলে

আমাদের কমেন্ট সেকশনে গিয়ে লিখুন। আমরা পরবর্তী লেখায় আপনাকে বিস্তারিতভাবে বর্ণনা করব । আর যদি আপনি

দয়া করে আপনার মূল্যবান মতামত পেশ করেন তাহলে আমরা উপকৃত হব।

ধন্যবাদ কষ্ট করে বিষয়টি পড়ার জন্য।

একই জাতীয় লেখা:

১. গুগোল সম্পর্কে বিস্তারিত।

২. ফেসবুক বিস্তারিত।

৩.ইউটিউব নিয়ে বিস্তারিত

৪. গুগল ম্যাপ বিস্তারিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.