Trending

যৌন শক্তি বৃদ্ধির উপায়

সেক্স বাড়ানোর উপায়

যৌন শক্তি বৃদ্ধির উপায়: য়আজকে আমি আপনাদেরকে সমানে এমন একটি বিষয় আলোচনা করবো যে বিষয়টি সবার জন্যই গুরুত্বপূর্ণ। আর এটা এমন এক বিষয় যা সবার সাথে শেয়ার করা যায় না । আর কাউকে বালাও যায় না । আমরা অনেকেই লজ্জার ভয়ে এই অসুখ থেকে নিজেকে আড়াল করে রাখতে চাই। ধরা দিতে চাই না সবার সামনে,

আর যারা এরকম সমস্যায় ভুগছেন এবং কাউকে বলতে পারতেছেন না তাদের জন্যই মূলত আমার এই লিখাটি। আমি চাই আমার এই লিখাটি দ্বারা আপনি আপনার সমস্যাটিকে সমাধান করে নিন। আশা করি আপনি যদি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত লেখাটি পড়েন তাহলে আপনার আর  এই সমস্যা থাকবে না।

কারণ এখানে আমি আজকে উল্লেখ করব এমন কিছু ওষুধ এবং খাবারের নাম যে খাবারগুলো খেলে এবং ওষুধ গুলো সেবন করলে আপনার যৌন সমস্যা বলে কিছু থাকবে না। আপনি আপনার সংসার জীবনে হতে পারবেন সুখী। বর্তমানে দেখা যাচ্ছে যৌন সমস্যার কারনে অনেক সংসারে অশান্তি লেগেই থাকে।

সংসারে শান্তি না থাকার কারণে কখনো সংসারে শান্তি বজায় থাকে না।এজন্য আপনাকে জানতে হবে, আর তাই বলা হয় লজ্জা নয়, বাঁচতে হলে জানতে হবে । তাই আপনি আপনার জীবনে এ বিষয়গুলো জেনে নিয়ে আপনার জীবনে কাজে লাগিয়ে জীবনটাকে সুন্দর ভাবে গড়ে তুলুন। প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত যৌন শক্তি বৃদ্ধির উপায় পড়ার জন্য অনুরোধ করছি।

সূচিপত্র

যৌন সমস্যা কি?

যাদের বয়স কম তারা হয়তাবা এই কথাটির সাথে পরিচিত নয় । কিন্তু বয়স বাড়ার সাথে সাথে অর্থাৎ যাদের বয়ষ ৪০ বছর বা তার চেয়ে বেশি তারা এই সমস্যায় বেশি পড়ে থাকে। যার কারণে সংসারে দেখা দেয় অশান্তি এক সময় ডিভোর্স পর্যন্ত গড়ায়। যৌন সমস্যাটি হচ্ছ মূলত শরীরিক আনন্দ,আকাঙ্ক্ষা, পছন্দ উত্তেজনা বা অর্গাজস সহ যৌন ক্রিয়াকলাপের যে কোন সময় কোন নারী বা পুরুষ দ্বারা যৌন উদ্দীপনা লাভে বা যৌন ক্রিয়ার চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌছানোর পথে অনুৎসাহিত হওয়াকে বলে।

আরো সহজ করে যৌন সমস্যা সম্পের্কে বলতে গেলে এটা হলো এক ধরনের যৌন সমস্যা যা সাধারণত যৌন ক্রিয়া করার অযোগ্যতাকে বুঝা অর্থাৎ যৌন কাজ করার সময় নারী অথবা পুরুষের অপারগতা। উদাহরণ হিসেবে বলতে গেলে লিঙ্গ শক্ত না হওয়া , দ্রুত বীর্যপাত,যৌন সংগমে অনিহা ইত্যাদি।

কেন যৌন সমস্যার সৃষ্টি হয় ?/ যৌন সমস্যার জন্য দায়ি কি?

এখনো পর্যন্ত আমাদের দেশে যৌন শিক্ষা এবং যৌন চিকিৎসা সম্পর্কে তেমন কোনো অগ্রগতি নাই। প্রাতিষ্ঠানিক গড়ে ওঠেনি কোন যৌন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এখানে আছে শুধু কিছু হারবাল চিকিৎসা ও এলোপ্যাথি  ছাড়া আর কোন চিকিৎসা নেই। মনোবিজ্ঞানের দ্বারা এখন পর্যন্ত তেমন একটা  চিকিৎসা বাংলাদেশে প্রচলন হয় নি।

আর তাই বিভিন্ন কারণে যৌন রোগের সমস্যা হতে পারে আমাদের প্রাত্যহিক জীবনে বা সাংসারিক জীবনে । যেমন নানা ধরনের দুশ্চিন্তাগ্রস্ত থাকার কারণে যৌন সমস্যা হতে পারে, বিভিন্ন খাদ্যাভ্যাসের কারণে যৌন সমস্যা হতে পারে, এছাড়াও আরও বেশকিছু কারণ রয়েছে যেগুলো যৌন সমস্যার জন্য দায়ী। নিম্নে সকল বিষয় বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

 ধূমপানের ও মদ্যপানের  ফলে যৌন সমস্যা

দিন দিন সমাজে ধূমপানের পরিমাণ বেড়েই চলেছে। এখন এটাকে একটি আধুনিক মডেল হিসেবে পরিণত হয়েছে । তাই অনেক গবেষণায় দেখা গেছে যারা অধিক ধূমপান করেন তারা লিঙ্গ উত্থানজনিত সমস্যায় বেশি ভোগে এবং তারা যৌনতাকে তুলনামূলক কম পছন্দ করেন।

দুশ্চিন্তা থেকে যৌন সমস্যা

দুশ্চিন্তা থেকে অনেক সময় যৌন সমস্যা দেখা দিতে পারে । কয়েকটি গবেষনায় দেখা গেছে যারা দিনের পর দিন দুশ্চিন্তাগ্রস্ত থাকে তাঁরা আস্তে আস্তে যৌনমিলনের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলে। এছাড়াও সাংসারিক জীবনে স্বামী-স্ত্রীর মিল না থাকলেও দেখা দিতে পারে যৌন সমস্যা। আর তাই স্বামী-স্ত্রীর এইরকম দুশ্চিন্তা দিনের পর দিন অতিবাহিত হলে একসময় দুজনেই যৌন সমস্যায় ভুগতে থাকে।

শারীরিক ওজন বৃদ্ধির ফলে বা ব্যায়াম না করার ফলে যৌন সমস্যা

অনেক সময় দেখা যায় শরীরের ওজন বৃদ্ধির ফলে যৌন সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। সে ক্ষেত্রে দিনদিন যৌনাকাঙ্ক্ষা কমতে থাকে যা পরবর্তিতে স্থায়ী রুপ ধারণ করে। তাছাড়াও যারা নিয়মিত ব্যায়াম না করে তাদেরও এ সমস্যা হতে পারে, কারণ ব্যায়াম না করার ফলে দেহের রক্ত চলাচল সচল হয় না।

এর ফলে লিঙ্গেও রক্ত চলাচন কম হয় যার কারণে লিঙ্গ শক্ত হয় না। আর লিঙ্গ শক্ত না হওয়ার  কারণে ঠিকমতো উত্থিত হয় না। যার কারণে যৌন সমস্যা পরিলক্ষিত হয়।

ক্ষতিকর ড্রাগ বা নেশা যৌন সমস্যার জন্য দায়ী

এক ডাক্তার তার  সাক্ষাৎকারে বলেছেন অনেক রোগী আছে যারা যৌন সমস্যায় দীর্ঘদিন যাবত ভুগতেছেন। আর এ দের বেশিরভাগই উচ্চবিত্ত পরিবারের লোকজন। যারা বিভিন্ন সময় ড্রাগে আসক্ত।আর এদের বেশিরভাগই যৌন সমস্যায় ভুগতেছেন তাই ক্ষতিকর ড্রাগ যৌন সমস্যার জন্য অন্যতম কারণ।

এর সাথে কিছু ওষুধ আছে যেগুলো দীর্ঘদিন খেলে যৌন সমস্যা হয় যেমন ব্যাথানাশক,গর্ভরোধী ইত্যাদি জাতীয়।যারা ড্রাগ আসক্ত, তাদের বেশিরভাগই ধীরে ধীরে যৌন ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেন। এছাড়াও কিছু ঔষধ আছে (ব্যথানাশক, গর্ভরোধী) যার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আপনার যৌনক্ষমতা কমিয়ে আনে।

কি ভাবে বুঝা যাবে যৌন সমস্যা

যৌন সমস্যা আমাদের অনেকেরই আছে। কিন্তু অনেক সময় আমরা সেটা বুঝতেই চাই না। আমরা আমাদের পার্টনার কে দায়ী করে থাকি এই সমস্যার জন্য। কিন্তু একবারও ভাবেনি আমারও যৌন সমস্যা থাকতে পারে । বিশেষ করে আমাদের সমাজে পুরুষরা তাদের স্ত্রীদের কে দোষারোপ করে থাকে বিভিন্ন ভাবে।

কিন্তু এটা কখনো আমরা উপলব্ধি করি না আমাদেরও থাকতে পারে যৌন সমস্যা। অনেকেরই মনে প্রশ্ন আমি কিভাবে বুঝবো আমার যৌন সমস্যা হয়েছে? তাদের জন্যে ছোট্ট একটি উত্তর, আর সেটা হলো আপনি যখন যৌনসঙ্গমের সময় আপনার সঙ্গিনীকে সন্তুষ্ট করতে না পারবেন তখনই বুঝে নিবেন আপনি একজন যৌন রোগী।

এছাড়াও আরো অনেক উপসর্গ আছে যে উপসর্গগুলো দেখলে আপনি ধরে নিতে পারেন আপনি একজন যৌন রোগী। যেমন-

  • দ্রুত বীর্যপাত।
  • লিঙ্গ শক্ত না হওয়া।
  • যৌনসঙ্গমে অনীহা।
  • শরীরিক দূর্বলতা।
  • শারীরিক অসুস্থতা।

যৌন সমস্যা সামাধান/ যৌন শক্তি বৃদ্ধির উপায়/সেক্স বাড়ানোর উপায়

আমরা যদি খাদ্যতালিকায় কিছু খাবার যোগ করতে পারি যে খাবার গুলো খেলে আমাদের যৌন সমস্যার সমাধান বা যৌন শক্তি বৃদ্ধি পাবে। আমাদের যৌন শক্তি বৃদ্ধির জন্য কার্যকরী যে খাবার সেগুলো আমাদের প্রত্যাহিক জীবনে রাখতে হবে। তবেই আমরা আমাদের যৌন সমস্যার সমাধান করতে পারবো।

যে  খাবারগুলো খেলে আমরা আমাদের যৌন সমস্যার সমাধান হবে সে বিষয়ে নিচে বিস্তারিত বর্ণনা করা হল।

যৌন শক্তি বৃদ্ধিতে আমলকি

আমলকিতে আছে প্রচুর ভিটামিন সি,আয়রন এবং জিংক যা পুরুষদের শুক্রাণুর সংখ্যা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে থাকে। আর আপনার সঙ্গির সাথে দীর্ঘ সময় সহবাস করতে পারবেন যদি আপনি আমলকি খান।

মিক্স শুকনো ফলের মাধ্যমে যৌন শক্তি বৃদ্ধি

আপনার যদি যৌন শক্তি বৃদ্ধির ইচ্ছে থাকে বা যৌন সমস্যা সমাধানের প্রয়োজন হয় তাহলে মিক্স ফল আপনার জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। এর বিভিন্ন পুষ্টি গুন আপনাকে দিবে যৌন সমস্যা থেকে সমাধান। মিক্স ফলের মধ্য আছে বাদাম, আখরোট,কিসমিস,কাজু বাদাম, খেজুর ইত্যাদি।

যৌন সমস্যা বৃদ্ধিতে ভিটামিন ডি

শরীরে ভিটামিন ডি এর অভাব হলে যৌন সমস্যা হতে পারে বা যৌন আকাঙ্ক্ষা কমে যেতে পারে । আর তাই এই সমস্যা সমাধানের জন্য আপনি খেতে পারেন তেলওয়ালা মাছ,চিজ, ডিমের মতো খাবার যেখানে প্রচুর ভিটামিন ডি থাকে। এছাড়াও  বাজার থেকে ভিটামিন ডি কিনে খাওয়ার মাধ্যমে এর অভাব পুরণ করতে পারেন।

যে গুলো ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার সেটা খেলে আপনার যৌন শক্তি বেড়ে যাবে বহুগুণ কারণে এর ফলে  শরীরে টেস্টেস্টেরন বাড়াতে সাহায্য করে।

সেক্স বাড়াতে বাদাম

বাদামের মধ্যে রয়েছে আর্জিনিন নামের অ্যামাইনো অ্যাসিড যা শরীরে টেস্টেরনের মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে । যার ফলে শরীরে ইরেকশন বাড়ে এবং এর ফলে যৌন ইচ্ছা বেড়ে যায়। তাই আপনি যদি আপনার যৌন শক্তি বাড়াতে চান তাহলে নিয়মিত বাদাম খান ।

যৌন শক্তি বাড়াতে মধু

মধুকে বলা হয় প্রাকৃতিক ডাক্তার। মধু খেলে যৌন শক্তি বৃদ্ধি পায় । এটা দেহের সৌন্দর্য অটুট থাকেও সাহায্য করে। তাই আদিকাল হতেই যৌন সমস্যা সমাধানের জন্য হারবাল চিকিৎসায় মধুর প্রচল হয়ে আসছে। মধুতে এমন কিছু পুষ্টি গুন রয়েছে যে যৌন শক্তিকে বাড়িয়ে তুলে বহুগুনে। এছাড়াও মধু লিঙ্গে মালিশ করলে লিঙ্গ শক্ত হয় বলে প্রচলন আছে।

(মধুর উপকারিতা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন)

সেক্স বৃদ্ধিকরার জন্য খেজুর

যুগ যুগ ধরে খেজুর যৌন রোগের চিকিৎসায় ব্যবহার হয়ে আসছে। তাই অনেক সময় হারবাল চিকিৎসা খেজুরের হালুয়া বানানো হয়। এছাড়াও খেজুর বিভিন্ন বিয়ে-শাদীতে বিতরণ এর প্রচলন হয়ে আসছে । যা যৌন শক্তি বৃদ্ধির বাহক হিসেবে ধরা যায়। তাই বিভিন্ন গবেষনায় দেখা যায় যারা  নিয়মিত খেজুর খায় তাদের যৌন শক্তি বৃদ্ধি পায়।

যৌন শক্তি বৃদ্ধির জন্য দুধ ও ডিম

ডিমকে বলা হয় জীবন্ত  ভিটামিন ক্যাপসুল । ডিমের মধ্যে অনেক পুষ্টি গুন বিদ্যমান যা শরীরের পুষ্টি চাহিদা মিটিয়ে শরীরকে রাখে সুস্থ আর যার কারণে যৌন চাহিদা বেড়ে যায় । অন্যদিকে দুধের মধ্যে এক মাত্র ভিটামিন সি ছাড়া সকল ভিটামিন বিদ্যমান যার কারণে দুধ খেলে যৌন চাহিদা বেড়ে যায় বহুগুনে।

তাছাড়াও ছাগলের দুধ খেলে আরো বেশি সেক্স এর উপকার হয়ে থাকে। যা বিভিন্ন পরিক্ষা দ্বারা প্রমানিত।

যৌন শক্তি বৃদ্ধিতে পালং শাক

ম্যাগনেশিয়াম শরীরের রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে থাকে। আর পালং শাকে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ম্যাগনেশিয়াম। জাপানের একদল গবেষকদের মতে শরীরের রক্ত চলাচল বাড়লে যৌন উদ্দীপনাও বাড়ে। পালংশাক ছাড়াও অন্যান্য শাকও যৌন শক্তি বৃদ্ধির জন্য কাজ করে থাকে।

সেক্স বৃদ্ধির জন্য রসুন

বেশ কয়েকটি গবেষণায় দেখা গেছে যারা নিয়মিত এবং পরিমাণমতো রসুন খায়, তাদের বীর্য বৃদ্ধি পায় এবং গাঢ় হয়। তারা দীর্ঘ সময় যৌন ক্রিয়া সম্পাদন করতে পারেন। যৌন সমস্যা সমাধানের জন্য এবং বৃদ্ধির জন্য রসুন খুবই উপকারী । এছাড়াও  যৌন চিকিৎসার জন্য রোশনের হালুয়া প্রদান করা হয়ে থাকে ।

(রসুন খাওয়ার উপকারিতা বিস্তারিত জানতে চাইলে পড়তে পারেন আমাদের রসুনের উপকারিতা লেখাটি । যেখানে রসুনের উপকারিতা সম্পের্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়েছে)

রতি শক্তি বৃদ্ধির জন্য স্ট্রবেরি ফল

এই ফলটি খেলে দেহের রক্ত সঞ্চালন ‍বৃদ্ধি পায় বিধায় শারীরিক সক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। আর এর মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা পুরুণের স্পারমের সংখ্যা বৃদ্ধি করার কাজ করে থাকে। আর তাই যদি কেহ তার যৌন শক্তি বৃদ্ধি করতে চায় তাহলে যেন স্ট্রবেরি ফন খায়।

কলা খাওয়ার মাধ্যমে যৌন শক্তি বৃদ্ধি

এই ফলের মধ্যে রয়েছে ব্রমেলাইন নামক এনজাইস যা পুরুষের যৌর সক্ষমতা বৃদ্ধি করে থাকে। তাছাড়াও কলার মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম ও রিবফ্লাবিন যা শারীরিক শক্তি বৃদ্ধি করে দেহকে সুস্থ রাখে এবং বীর্যের মান উন্নত করে। তাই সেক্স পাওয়ার বাড়ানোর জন্য প্রতিদিন খাবার তালিকায় কলা রাখা প্রয়োজন।

রতি শক্তি বৃদ্ধির জন্য তরমুজ

গবেষকদের করা এক গবেষনায় দেখা গেছে তরমুজের মধ্যে এমন কিছু পুষ্টি গুন রয়েছে যা যৌন শক্তি বৃদ্ধির জন্য খুবই সহায়ক। আর তাই তরমুজকে বলা হয় প্রকৃতিক ভায়াগ্রা। আর তাই যদি আপনি নিয়ম করে তরমুজ খান তাহলে আপনার রতি শক্তি বৃদ্ধি পাবে বহুগুনে।

বাদাম দ্বারা সেক্স পাওয়ার বৃদ্ধি

আপনি যে কোন ধরনের বাদাম খাননাকেন তার মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাট ও কোলেস্টেরল যা দেহের যৌন শক্তি বৃদ্ধির করে একই সাথে বীর্য তৈরি ও ঘন হতে সহায্য করে। আর এর জন্য আপনি যে বাদাম গুলো খাবেন তাহলো কাঠ বাদাম, চিনা বাদাম, কাজু বাদাম,আখরোট উল্লেখযোগ্য।

(আপনি কি জানতে চান বাদাম খেলে কি হয়? আর তাই বাদাম সম্পের্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে আমাদের বাদামের উপকারিতা এই লেখায় আর দেরি না করে ক্লিক করুন এখানে। )

তৈলাক্ত মাছ খেয়ে যৌন শক্তি বৃদ্ধি

মাছের মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমান আমিষ য শরীরের পুষ্টি চাহিদা মেটাতে খুবই প্রয়োজন তাছাড়াও তৈলাক্ত মাছে রয়েছে ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড যা শরীরের ডোপামিন বাড়িয়ে দেয় এবং মস্তিস্কে উদ্দীপনা জাগিয়ে তোলে। তাছাড়াও সামুদ্রিক মছে যৌন শক্তি আরো বেশি পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়ে থাকে।

(আপনি যদি কৃষি বিষয়ক বিভিন্ন ভিডিও দেখতে চান তহলে আমাদের এই চ্যানেলটি দেখতে পারেন যেখানে)

যৌন শক্তি বৃদ্ধির এলোপ্যাথি ওষুধ

যারা যৌন শক্তিকে তাৎক্ষণিক বাড়াতে চান তাদের জন্য রয়েছে বেশকিছু এলোপতি ঔষধ। যে গুলা খেলে আপনি খুব তাড়াতাড়ি আপনার জনশক্তিকে বাড়িয়ে নিতে পারবেন । কিন্তু অবশ্যই আপনার খেয়াল রাখতে  ভাল মানের  ওষুধ খাচ্ছেন কিনা। কারণ সমস্যা সমাধানের বিপরিতে ওষুধগুলো আপনার ভবিষ্যৎ জীবনকে হুমকির মুখে ফেলে দিতে পারে।

তাই সবচেয়ে ভালো ওষুধ সেবনের আগে ভালো ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে সেবন করা। বেশ কিছু ওষুধের নাম দেওয়া হলো যেকোনো আপনারা ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে  গ্রহণ করতে পারেন।

  •  Aggra 25 mg, 100mg.
  • Vigorex 25 mg,50 mg,100mg.
  • Tadalafil- Intimate 5mg,10mg,20mg. Edysta 2.5mg,5mg,10mg,20mg

যৌন শক্তি বৃদ্ধির হোমিও ওষুধ

যৌন শক্তি বৃদ্ধির জন্য বহু আগে থেকেই হারবাল চিকিৎসা বা হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা বহুল প্রচলিত। আর এই চিকিৎসার সাইডইফেক্ট তেমন একটা নাই বললেই চলে । এই জন্যই যুগ যুগ ধরে মানুষ তাদের সমস্যার সময় হোমিও চিকিৎসা বা হারবাল চিকিৎসার দ্বারস্থ হয়ে থাকে।

হারবাল চিকিৎসা যে সকল ঔষধ বহুল প্রচলিত এবং যে ওষুধগুলো সবচেয়ে বেশি কাজে দেয়, সেই স্থান থেকে দু’টি ওষুধের নাম নিচে উল্লেখ করা হয়েছে । যেই ওষুধ খেলে সহজেই আপনার সমস্যাটির সমাধান করতে পারেন।

  1. অশ্বগন্ধা যেটাকে হোমিওপ্যাথির মাদার টিংচার বলাহয়। যা সমস্যা সমাধানে খুবই কার্যকরী।
  2. জিনসেং যা যৌন সমস্যা সমাধানের জন্য খুবই কার্যকরী এর কোন ক্ষতিকর প্রভাব নেই বল্লেই চলে।

শেষকথা:

আশাকরি যৌন শক্তি বৃদ্ধির উপায় বিষয়টি পড়ে আপনারা আপনাদের যৌন সমস্যা সম্পর্কে জেনেছেন। কিভাবে তার সমাধান করবেন, এবং কোথায় আপনাদের যেতে হবে সে বিষয়টি সম্পর্কেও পরিষ্কার ধারণা পেয়েছেন। তাই আসুন আমরা আমাদের শারীরিক সমস্যা কে গোপন না রেখে, আমাদের শারীরিক সমস্যার সমাধান করে সুখী সুন্দর জীবন গড়ি।

সভাই জীবনটাকে উপভোগ করি । এই প্রত্যাশাই আল্লাহতালার কাছে করি। সবাইকে আল্লাহ্তায়ালা সুখে রাখুন সুন্দর রাখুন। কষ্ট করে যৌন শক্তি বৃদ্ধির উপায় বিষয়টি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। দয়া করে আপনার মূল্যবান মতামত কমেন্টেস সেকশনে  করে যাবেন।

আরো পড়ুন-

১. কাজু বাদাম খাওয়ার উপকারিতা

২. মধু খাওয়ার উপকারিতা

৩. যৌনাঙ্গ বৃদ্ধির উপায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.