Trending

বাছাই করা সেরা কিছু মানসিক শান্তি নিয়ে উক্তি কবিতা ও মেসেজ

mansik shanti nye ukti

মানসিক শান্তি নিয়ে উক্তি: মানসিক শান্তি এটা হচ্ছে একটি আপেক্ষিক বিষয়। আমরা অনেক সময় অশান্তি ভোগ করে থাকি, আর পৃথিবীতে বেশিরভাগ মানুষই অশান্তি অনুভব করতে থাকে। তাই মানসিক শান্তি নিয়ে আজকে আমরা বেশ কিছু উক্তি, কবিতা ও মেসেজ প্রদান করব যেগুলোর মাধ্যমে আপনি আপনার মানসিক শান্তি খুঁজে পাবেন।

তাছাড়া আমরা পৃথিবীতে যত কাজ কর্ম পরিচালনা করে আসছি না কেন? সবাই চাই শান্তি। আমাদের সকল কাজের মূলে থাকে শান্তি অর্জন করা। তাই চলুন আজকের লেখা পড়ে যাতে করে আমরা সহজেই মানসিক শান্তি অর্জন করতে পারি। আর নিজের মধ্যে বর্জায় রাখতে পারি মানসিক শান্তি। এখানে মূলত আমরা বেশ কয়েকটি বিষয় আলোচনা করবো ।

তার মধ্যে উল্লেখ যোগ্য হলো মানিসিক শান্তি কি?  মানুষের শান্তি কেন প্রয়োজন? কিভাবে মানসিক শান্তি আমরা নিজেদের মধ্যে বজায় রাখতে পারি? সমস্ত কিছু বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। যাতে করে আমাদের মধ্যে যেন মানসিক শান্তি বিরাজ করে।

মানসিক শান্তি কি ?

শান্তি হচ্ছে মনের বিষয় বিষয়। যার ইংরেজী প্রতিশব্দ হচ্ছে ( Peace)। চাপের প্রভাব বা মানুষিক বিরূপ প্রভাব থেকে মুক্ত থাকার মাধ্যমে মানসিক শান্তি অর্জন হয়। এছাড়াও মানুষ যখন তার চাওয়া, পাওয়া, লোভ-লালসা ও ভোগবিলাস থেকে সরে আসতে পারে তখনই কেবল মানুষ মানসিক শান্তি লাভ করতে সক্ষম হয়। তাই যদি আমরা মানসিক শান্তি বলতে কি বুঝায়?

এই কথাটি বোঝাতে চাই তাহলে ছোট্ট পরিসরে বলা যায়, সকল চাওয়া পাওয়া পরিত্যাগ করার ফলে, মনের মধ্যে যে শান্তি বিরাজ করে সেই শান্তিকে মূলত আমরা মানসিক শান্তি হিসেবে আখ্যায়িত করতে পারি।

কিভাবে মানসিক শান্তি রক্ষা করা যায়?

অনেকেরই কাছে হয়তবা এই বিষয়টি অনেক সাধরণ মনে হচ্ছে। আসলে বিষয়টি সহজ নয়। যখন কারো কাছে টাকা পয়সা বা ধন সম্পত্তি থাকে তখন আমরা মনে করি সে মানসিক ভাবে শান্তিতে আছে। আসলে কি তাই? অনেক জরীপে দেখাগেছে অনেক টাকা পয়সা ধনসম্পত্তি থাকা সত্ত্বেও বিভিন্ন কারণে বেছে নিয়েছে আত্নহত্তার মত পথ।

আর এর সবচেয়ে বড় উদাহরণ হলো বাংলাদেশ চলচিত্রের জনপ্রিয় নায়ক রিয়াজের শশুরের ফেসবুক লাইভে এসে আত্নহত্যা । যেই আত্নহত্যা নাড়া দিয়েছে মানুষের ভিবেককে। অনেক সম্পদ থাকার পরেও  তার মধ্যে ছিলনা কোন মানসিক শান্তি।

আর তাই আমরা যদি মানসিক শান্তি রক্ষা করতে চাই আমাদের উচিৎ চাওয়া পাওয়া লোভলালসা ত্যাগ করে নিজের সন্তানকে ভালমানুষ হিসেবে যোগ্য করে গড়ে তোলা।

মানসিক শান্তি রক্ষা করা কেন প্রয়োজন?

আমরা যত কাজই করি না কেন আমাদের মূল লক্ষ্য থাকে মানুষিক ভাবে শান্তি লাভ। হোক সেটা ব্যাক্তি জীবনে হোক সেটা সংসার জীবনে। তাই যেহেতু আমাদের প্রতিটা কাজ পরিচালিত হয় মানুষের সুখ শান্তির জন্য, তাই বলা যায় মানুষের সুখ শান্তি রক্ষা করা একান্ত প্রয়োজন। এছাড়াও মানুষিক সুখ শান্তি থাকলে পরিবারে তথা,

সমাজিক ও রাষ্ট্রিয় জীবনে কোন ধরনের নশকতা মূলক কাজ করার মন মানসিকতা থাকে না। মানসিক শান্তি থাকলে ব্যাক্তি জীবন যেমন সুখের হয় তেমনি রাষ্ট্রীয় সুখ শান্তি বর্জায় থাকে । আর তাই মানসিক শান্তি প্রতিটি মানুষের জন্য অপরিহার্য।

মানসিক শান্তি আনার উপায়

মানসিক শান্তি নিয়ে উক্তি
শান্তি নিয়ে উক্তি

মানসিক শান্তি চাইলেই পাওয়া যায় না। মানসিক শান্তি আস্তে আস্তে নিজের মধ্যে আনতে হয়। আমরা যদি কয়েকটি পদ্ধতি অনুসরণ করি তাহেল খুব সহজেই মানসিক শান্তি অর্জন করতে পারবো। আর যে সকল পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে তা নিচে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করবো।

১. ধ্যানের মাধ্যমে বা মেডিটেশন করার মাধ্যমে।

২. শারীরিক ব্যায়াম করার মাধ্যমে।

৩. ধর্মীয়ভাবে জীবন যাপন করার মাধ্যমে।

৪. অন্যর উপকার করার মাধ্যমে।

৫. সৎভাবে জীবন যাপন করার মাধ্যমে।

 ধ্যানের মাধ্যমে বা মেডিটেশন করার মাধ্যমে মানসিক শান্তি অর্জন।

এই পদ্ধতি হচ্ছে মানসিক শান্তি আনার সবচেয়ে কার্যকরী পদ্ধতি। কেউ যদি নিয়মিত সকলা বেলা ও বিকেল বেলা ১০ থেকে ৩০ মিনিট পরিমাণ গভীর ধ্যান করে এবং নিজেকে খুব সুখি ভাবতে থাকে তাহলে তার মনের মধ্যে এক প্রকার প্রশান্তির সু-শীতল বাতাস বয়ে যায় । যা তার মানসিক শান্তির জন্য যথেষ্ট। তাই আসুন প্রতিদিন নিয়মিত নির্জন জায়গায় বসে আমরা ধ্যান করি এবং শান্তি ময় জীবন গড়ী।

শারীকিক ব্যায়ামের মাধ্যমে মানসিক শান্তি অর্জন

যখন কোন ব্যাক্তি ব্যায়াম শুরু করেন তখন তার শরীরের মস্তিস্কের ডোপামিন ও সেরোটোনিন নামক রাসায়নিক উপদান  নিঃসৃত হয় । যা মানসিক অবসাদ দূর করার জন্য খুবই কার্যকরী ভূমিকা পালন করে মনে প্রশান্তি আনে। তাই প্রতিদিন যদি কেহ নিয়মিত ১৫ থেকে ২০ মিনিট ব্যায়াম করে এবং এর সাথে সাথে সকল প্রকার মাদক থেকে বিরত থাকে তবে সে মানসিক শান্তি অর্জন করতে পারবে।

ধর্মীয়ভাবে জীবন যাপন করার মাধ্যমে মানসিক শান্তি অর্জন

আপনি যদি সকল ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী জীবন যাপন করতে পারেন, তবে আপনি মানুষিক ভাবে শান্তি পাবেন। কারণ সকল ধর্মেই লোভ লালসাকে  খারাপ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে । আর মানুষের শান্তি নষ্ট করার জন্য লোভ লালসাই যথেষ্ট। তাই যদি কারো মনে লোভ না থাকে, তাহলে বলা যায় তার মনে শান্তি বিরাজ করে।

অন্যর উপকার করার মাধ্যমে মানসিক শান্তি অর্জন

অপরের উপকারে নেই যার মন, কে বলে মানুষ তারে পশু সেই জন। কবির এই কথার সাথেই শুর মিলিয়ে বলতে হয় যদি কোন মানুষ প্রতিনিয়ত অপরের উপকার করার জন্য নিজেকে সচেষ্ট রাখে তবে তার মনে শান্তি বিরাজ করে। কারণ সে মানুষিক ভাবে শান্তি পায়।

সৎভাবে জীবন যাপন করার মাধ্যমে মানসিক শান্তি অর্জন

মানুষ যখন সৎভাবে জীবন যাপন করে তখন তার মনের মধ্যে অন্য এক ধরনের শান্তি থাকে। তাই আমাদের প্রতিটি কাজে কথা বর্তায় সৎ থাকা দরকার । সমাজে ভালমানুষের খুবই অভাব । আর এর কারণেই যত অশান্তি। তাই যারা সৎভাবে বসবাস করে তার খুবই মানসিক শান্তিতে থাকে।

মানসিক শান্তি নিয়ে উক্তি

সবাই চায় মানসিকভাবে শান্তি পেতে। আর চায় শান্তিতে বসবাস করতে। মানুষ  সবসময় মনে মনে কল্পনা করে কি ভাবে শান্তিতে বসবাস করা যায়? আর তার জন্য খোঁজ করে বিভিন্ন উপায়।

তাই আসুন আমরা কিভাবে আমাদের নিজেদের মধ্যে মানসিকভাবে শান্তি বজায় রাখতে পারি, এবং শান্তিতে বসবাস করতে পারে সে সম্পর্কে  কিছু  উক্তি ‍প্রদান করবো যে গুলো পড়ে আমরা মানসিকভাবে শান্তি পেতে পারি।

যে সকল জিনিস আমি হারিয়ে ফেলেছি ,তার মধ্যে আমি আমার মনে সবচেয়ে মিস করছি- প্রখ্যাত মার্ক টোয়েন।

পৃথিবীর যত খারাপ কিছু আছে, তা আপনার নিজের চিন্তাভাবনার চেয়ে বেশি ক্ষতি করতে  পারে না-24favor.com

কখনোই শান্তি শক্তি প্রয়োগ দ্বার লাভ করা যায় না। এটা একমাত্র আনা সম্ভব বোঝাপড়ার মাধ্যমে- বিখ্যাত বিজ্ঞানী অ্যালবার্ট আইনস্টাইন।

অন্ধকারকে কখনো অন্ধকার সরিয়ে দিতে পারে না। অন্ধকার সরাতে দরকার আলোর । আর তাই ঘৃণা কখনো ঘৃনা দূর করতে পারে না । ঘৃণাকে সরাতে দরকার প্রেমের – মার্টিন লুথার কিং পুনিয়র

আপনি অভদ্র সমালোচনামূলক যুক্তিযুক্ত লোকদের প্রতি যত কম সাড়া দিবেন। আপনার জীবন দেখবেন ততই শান্তিময় হয়ে উঠেছে- প্রখ্যাত ম্যান্ডি হালে

মানসিক শান্তি নিয়ে ইসলামিক উক্তি

ইসলাম হচ্ছে শান্তির ধর্ম । কেউ যদি ইসলামের সু-শীতল ছায়ায় পথ চলা শুরু করে, তাহলে তার মানসিক শান্তি থাকবে সবসময়। তাই আসুন আমরা কিভাবে ইসলামী জীবন যাপন করে মানসিক শান্তিতে থাকতে পারি, সেই বিষয়য়ে কিছু দিক নির্দেশনা দেখি।

এছাড়াও ইসলামে রয়েছে উল্লেখযোগ্য কিছু দিক নির্দেশনা যা অনুসরণ করলে আমরা পেয়ে যাবো মানসিক ভাবে শান্তি । ইসলামে যে সকল উক্তি গুলো রয়েছে তার মধ্যে উল্লেখ যোগ্য উক্তি গুলো হলো নিম্নরুপ।

যদি কোন ব্যাক্তি দ্বীনের কাজ বিশ্বাসের সাথে করে । তবে তার মনের মধ্যে প্রশান্তির হাওয়া বইতে থাকে। 

মনে যদি সত্যিকার ভাবে কেহ শান্তি চায় তবে তাকে তার শত্রুদের সাথে কাজ করতে হবে তাহলেই সেই শত্রু তার মিত্রে পরিণত হবে।

ভাল মানুষ সাতবার বিপদে পড়েও আবার উঠে কিন্তু খারাপ লোক বিপদে পড়লে ধ্বংশ হয়ে যায়- হযরত সুলায়মান(আঃ)

সকল দুঃকের মূল এই মায়াবি দুনিয়ার প্রতি অত্যাধিক আকর্ষণ- বিখ্যাত সাহাবী হযরত আলী ( রাঃ)

যদি কোন ব্যাক্তি মানুষকে দয়া না  করে , আল্লাহ তায়ালা তার ‍উপর রহমত বর্ষণ করে না – আল হাদিস

সুখ শান্তি নিয়ে উক্তি

আপনাদের জন্য এখানে দিয়েছি কিছু সুখ আর শান্তি নিয়ে উক্তি। যে উক্তি গুলো পড়লে আপনি খুবই মজা পাবেন। একই

সাথে এই উক্তি গুলো দ্বারা আপনার মনেও সুখ শান্তি বিরাজ করবে। আপনি ইচ্ছে করলে এই উক্তি গুলো শেয়ার করতে

পারবেন বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে । এতে করে আপনার বন্ধুগন আপনার উক্তি গুলো দেখতে পারবে।

মরা ফুলে যে রকম কোন ভ্রমর বসে না
ঠিক তেমনি ক্ষুদার্থ হৃদয়ে শান্তি থাকে না।

অনেকেই বলে সুখ শান্তি
পাওয়া  খুবই কঠিন।
কিন্তু এই কঠিন জীনিস
একটু চেষ্টা করলেই পাওয়া যায়। 

টাকা পয়সার জন্য জীবন নয়
জীবনের জন্য টাকা পয়সা।

জীবনে যদি কখনো সুখ আসে
তবে সেটাকে মনের মত করে
উপভোগ করার চেষ্টা করো
কারণ সুখ বেশি দিন থাকে না।

যখন মানুষ সুখে থাকে
তখন বুঝতেই পারেনা 
তার সময় কত দ্রুত যাচ্ছে
কিন্তু দুঃকের সময় অনেক লম্বা।

মানসিক শান্তি নিয়ে মেসেজ

যদি আপনি মানসিক শান্তিতে থাকতে চান তহলে এই মেসেজ গুলো পড়তে পারেন । আর এই মেসেজ গুলো শেয়ার করতে পারেন সবার সাথে। এতে করে আপনার মনের কষ্ট্য দূর হয়ে যাবে। আপনি পাবেন মানসিক শান্তি। নিচে নতুন কিছু আনকমন মেসেজ প্রদান করা হল।

  • জীবনের সকল ব্যবস্ত আর চাওয়া পাওয়া দিন দিন আমাদের শান্তি শেষ করে দিচ্ছে।
  • জানি জীবনে যতদিন চাওয়া পাওয়া থাকবে ততদিন সুখ থাকবে না । তাই মনে হয় যে খানে চাওয়া পাওয়ার কোন জামেলা নাই সেখানে চলে যাই।
  • আমরা যখন হাঁসি তখন নিজেকে খুসি ভাবে উপস্থাপন করার জন্য শুধু হাঁসি । কারন মনের দিক দিয়ে সুখি খুব কম লোকই আছে।
  • যদি তুমি শান্তি চাও তাহলে তুমার মনের ক্ষুদাকে দমিয়ে রাখ।
  • পৃথিবীর প্রতিটি মানুষই শান্তি চায় । কিন্তু দুঃখের বিষয় শান্তি লাভের জন্য কেউ কাজ করে না।

মানসিক শান্তি নিয়ে কবিতা

 এই কবিতাটি অনেক সুন্দর আপনার মানসিক শান্তির জন্য পড়তে পারেন। এছাড়াও এই কবিতাটি শেয়ার করতে পারেন

সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। কবিতাটি পড়লে আপনার অনেক ভাল লাগবে। এই কবিতাটি একদম নতুন এবং আনকমন।

আশাকরি এই কবিতাটি আগে কখনও দেখেনি।

 একটু শান্তি
    লেখক: 24favor.com

একটু শান্তি পেতে ওরে 
চাইছে আমার মন।
সকল ব্যাস্ততা বাদ দিয়ে
ঘুরে বেড়াও কতক্ষণ
দুঃখ যতই আসুখ ওরে
পাইনা মনে ভয়। 
চাওয়া পাওয়ার নেইকো কিছু
দুঃখ করবো জয়।
মরন ব্যধি সবই ওরে
খোদার সবি খেলা
আমি কেন দুঃকরে 
কটিয়ে দিব বেলা।
হাসবো খেলবো
মজা করবো থাকবে অতি সুখে
জীবন যুদ্ধে জয়ী হয়ে
শান্তি থাকবে বুকে।

শেষ কথাটিও অনেক সুন্দর

আশাকরি উপরোক্ত মানসিক শান্তি নিয়ে উক্তি লেখাটি আপনার অনেক অনেক ভাল লেগেছে। আর আপনাদের ভাললাগাই

আমার কাম্য। তাই দয়াকরে আমাদের কমেন্স করবেন । যাতে করে আরো ভাল ভাল লেখা আপনাদের উপহার দিতে পারি।

যদি কোন বিষয়ে খারাপ লেগে থাকে তাহলেও জানাবেন। অনেক ধন্যবাদ কষ্ট করে লেখাটি পড়ার জন্য।

আরো যে বিষয় গুলো পড়তে পারেন তাহলো :

. জীবন নিয়ে সেরা ২৫০ টি কথা .উক্তি

২. মা নিয়ে কিছু কথা ছন্দ, উক্তি ও মেসেজ

. কিছু কথার পিঠে কথা গান

. বাপের বেটা কবিতা 

৫.নীরবতা নিয়ে উক্তি, কবিতা

Leave a Reply

Your email address will not be published.